যারা চালের দাম বেশি নিচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে শুধু রমজান নয়, সব সময়ই অভিযান চলবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ সময় খুব শীঘ্রই চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে বলেও আশাব্যক্ত করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে মন্ত্রণালয়ে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার মান্টিটাস্কির সঙ্গে বৈঠক শেষে একথা বলেন খাদ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, হঠাৎ করে দাম বৃদ্ধি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। চালের বাজার স্বাভাবিক রাখতে কৃষি, বাণিজ্য এবং খাদ্য মন্ত্রণালয় সমন্বিতভাবে কাজ করবে বলেও জানান তিনি।

মন্ত্রী আরও বলেন, ব্যবসায়ীরা নির্বাচনকালীন সময় থেকে মন্ত্রিসভা গঠন পর্যন্ত সুযোগ নিয়েছে। তবে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। চালের দাম ইতোমধ্যেই কমতে শুরু করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, দুই একদিনের মধ্যে করপোরেট ব্যবসায়ীদের ডাকা হবে। শিগগিরই চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে হঠাৎ বাড়তে শুরু করে চালের দাম। মোকামগুলোয় চালের দাম বাড়ার পর রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশেই চালের দাম ঊর্ধমুখী। এ দফায় মোটা, মাঝারি ও সরুসহ সব ধরনের চালের দামই বেড়েছে। বিক্রেতারা বলছেন, বছরের শুরুতে মিলমালিকেরা চালের দাম বাড়িয়েছেন। তবে মিলমালিক ও পাইকারি ব্যবসায়ীদের দাবি, বাজারে ধানের সরবরাহ কমায় বেড়েছে চালের দাম।