শব্দদূষণ বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে আজ রোববার (১৫ অক্টোবর) সকাল ১০টা থেকে ১০টা ১ মিনিট ঢাকা শহর শব্দহীন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়। ‘শব্দদূষণ বন্ধ করি, নীরব মিনিট পালন করি’ স্লোগানকে সামনে রেখে এই কর্মসূচি পালন করা হয়।

তবে লিফলেট বিতরণ ও হ্যান্ডমাইকে প্রচারণা ছাড়া আপাতদৃষ্টিতে তেমন কোনো কাজেই আসেনি এই কর্মসূচি। এমনকি কর্মসূচি চলাকালেই বিভিন্ন গণপরিবহনসহ ব্যক্তিগত যানবাহনে শোনা যায় বিকট শব্দে হর্ন।

রোববার (১৫ অক্টোবর) সকাল ১০টায় এক মিনিটের এই কর্মসূচি শুরু হলে শাহবাগ মোড়ে সরেজমিনে দেখা যায়, এক মিনিটের জন্য শাহবাগ মোড়ে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় ট্রাফিক পুলিশ। এসময় শাহবাগ মোড় দিয়ে কোনো যান চলাচল করতে দেওয়া হয়নি। এই কর্মসূচির মধ্যেই মোড়ে ঢুকে পড়ে মোটরসাইকেল। আবার মোড়ে দাঁড়িয়েই বিকট শব্দে হর্ন বাজায় প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল, বাস, সিএনজিসহ বিভিন্ন গণপরিবহনকে। মোড়ের সিগন্যাল ছেড়ে দিলে হর্নের শব্দ আরও বেড়ে যায়। সব গাড়িই যেন নেমে পড়ে হর্ন বাজানোর প্রতিযোগিতায়।

শাহবাগ মোড়ে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রচারণার দায়িত্বে থাকা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আব্দুস সালাম সরকার বলেন, ‘আমরা আমাদের কার্যক্রম শুরু করেছি মাত্র। এটা একদিনেই বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয়। চেষ্টা করছি জনগনকে সচেতন করতে। সফলতা আসতে সময় লাগবে।’

ঢাকা শহরের ১১টি গুরুত্বপূর্ণ স্থান যথা- ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনের সামনে, শাহবাগ মোড়, উত্তরা, বিজয় সরণি মোড়, মিরপুর-১০ নম্বর গোলচত্বর, গাবতলী, মগবাজার, মহাখালী, গুলশান-১, কমলাপুর, বৌদ্ধমন্দির ও যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তায় ১৫ অক্টোবর সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অধীন দপ্তর এবং সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্কুল-কলেজের স্কাউট সদস্য, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সরকারি দপ্তর ও সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী, ট্রাফিক পুলিশ ব্যানার, ফেস্টুনসহ উপস্থিত থেকে মানবন্ধন করে। পরে এক মিনিট শব্দহীন এই কর্মসূচি পালন করা হয়।