কাগজ-কলমে বর্ষা এখনো না এলেও বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। এরই মধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু (বর্ষা) বিস্তার লাভ করেছে সারাদেশে। মোটামুটি সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে সোমবার সারাদেশেই বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

তবে ছয় বিভাগে বৃষ্টির প্রবণতা বেশি থাকবে। এসব বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এতে দিন ও রাতের তাপমাত্রা কিছুটা কমে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।

এর আগে ২৯ মে শুরু হয়েছিল তাপপ্রবাহ। সেই তাপপ্রবাহ চলে টানা ১০ জুন পর্যন্ত। কিন্তু একদিনে বিরতি দিয়ে ফের দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে আবার শুরু হয় তাপপ্রবাহ। যদিও তা সোমবার দূর হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এদিকে আজ সোমবার সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ মেঘলা ছিল। বেলা গড়াতেই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়। বেলা ১১টার আগে পুরো আকাশ কালো মেঘে ঢেকে যায়। এরপর শুরু হয় বৃষ্টি। টানা ঝুম বৃষ্টি চলে এক ঘণ্টারও বেশি।

রোববার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা বিভাগ ছাড়া সব বিভাগেই কম-বেশি বৃষ্টি হয়েছে। তবে খুলনা বিভাগ ছিল প্রায় বৃষ্টিহীন। গত কয়েকদিনের মধ্যে চট্টগ্রামে বৃষ্টির প্রবণতা বেশি ছিল। এসময় দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ১১৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সীতাকুণ্ডে।

আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ জানান, দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশে বিস্তার লাভ করেছে। মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে। সোমবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস তুলে ধরে তিনি বলেন, রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং চট্টগ্রাম ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।

রাজশাহী ও পাবনা জেলাসহ খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা প্রশমিত হতে পারে। তবে আগামী তিনদিনের মধ্যে তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে বলেও জানান বজলুর রশিদ। রোববার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল চুয়াডাঙ্গায়। ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩১ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

অন্যদিকে সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়- রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম সিলেট অঞ্চল সমূহের ওপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫-৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।