রাতের বেলা ঘুমানোর জন্য ছটফট করলেও ঠিকমতো ঘুম আসে না। চোখ বুজলেই গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়, মনে হয় যেন সারাদিনে পর্যাপ্ত পানি পান করা হয়নি। যদি প্রায়ই এমন হয় তবে হেলাফেলা না করে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া জরুরি।

তবুও প্রাথমিকভাবে জেনে নেয়া দরকার, ঠিক কী কী কারণে এ উপসর্গগুলো দেখা দেয়। চিকিৎসকরা বলছেন—নিচের রোগগুলোতে ভুগলে রাতে গলা শুকিয়ে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দিতে পারে।

হাঁপানি

যাদের হাঁপানির সমস্যা থাকে, তারা নাকের বদলে মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নেন। সে কারণে মুখের লালা শুকিয়ে যায় এবং পানির তৃষ্ণা বাড়ে। ফলে রাতে বারবার গলা শুকিয়ে যেতে পারে।

হাই প্রেসার

হাই প্রেসারের সমস্যা থাকলেও রাতে ঘাম হয় এবং গলা শুকিয়ে যায়। এছাড়া সুগারের একটি লক্ষণীয় উপসর্গ হলো গলা শুকিয়ে যাওয়া।

অবসাদ

যারা অবসাদে ভোগেন, তাদের মধ্যেও রাতে গলা শুকানোর প্রবণতা দেখা যায়। আর নার্ভের রোগীদের মধ্যেও এই সমস্যা বেশি দেখা যায়।

হৃদরোগ

হৃদরোগে ভোগা রোগীদের গলা শুকানোর সমস্যা দেখা যায়। ধূমপানের কারণে হৃদরোগ হতে পারে। ফলে রাতে গলা শুকিয়ে যাওয়ার হাত থেকে রেহাই পেতে গেলে ধূমপান বন্ধ করা জরুরি।

এছাড়া চা কিংবা কফি পান করলে গলা শুকানো উপশম হবে। সর্দির কারণে নাক বন্ধ থাকলে গরম পানির ভাপ নিন। বেশি করে উষ্ণ গরম পানি পান করুন।