ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। প্রতি বছরই অনেক মানুষের মৃত্যুর কারণ ধূমপান। সরকারি-বেসরকারি পর্যায় থেকে নিয়মিত ধূমপানবিরোধী সচেতনতামূলক প্রচারণা চালানো হয়।

অথচ দৈনন্দিন জীবনে এমন অনেক বদ অভ্যাস রয়েছে, যেগুলোর ব্যাপারে আমরা জানিই না। অথবা জেনেও বিশেষ পাত্তা দেয়া হয় না। অথচ নিঃশব্দে এগুলো ধূমপানের চেয়েও বেশি ক্ষতি করে ফেলছে আমাদের শরীরে।

ধূমপানের চেয়েও ক্ষতিকর বদ অভ্যাসগুলো হলো—

অনিদ্রা

বাংলাদেশের অধিকাংশ প্রাপ্তবয়স্কদের ইনসোমনিয়া রোগ রয়েছে। পাশাপাশি তরুণ প্রজন্মও এ রোগে ভুগছে। দীর্ঘ সময়ে ধরে কম্পিউটারের স্ক্রিনে তাকিয়ে থাকা বা ঘুমোনোর আগেও মোবাইল নিয়ে শুয়ে থাকায় এ সমস্যা আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে। অনেকে পাত্তা না দিলেও, ঘুম না হওয়ায় শরীরের নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। ঘুম কম হলে ওবেসিটি, চোখের সমস্যা, ক্লান্তি, বদহজমের মতো অসুখ শরীরে বাসা বাঁধে।

একাকিত্ব

গবেষণা বলছে—দীর্ঘ একাকিত্ব শরীরে নানা ধরনের জটিলতা তৈরি করে। বিশেষ করে মস্তিষ্কে এর প্রভাব পড়ে খুব বেশি। ডিমেনশিয়া, অ্যালজাইমার্সের মতো মারাত্মক রোগের উৎস হতে পারে একাকিত্বই। তাই এ সমস্যা যতটা বোঝা যাচ্ছে, তার চেয়ে ভয়ঙ্কর রূপ নিতে পারে।

নেতিবাচক চিন্তা

আমরা সবাই মাঝে-মধ্যে নেতিবাচক হয়ে পড়ি। জীবনে কিছুই যেন ঠিক মতো হচ্ছে না, এ ধরনের চিন্তা আমাদের গ্রাস করে। কিন্তু আবার কিছু দিনের মধ্যে সেগুলো ঝেড়ে ফেলে ফের নতুন উদ্যমে জীবনযাপন করি। অনেকেই এ নেতিবাচক চিন্তা থেকে বেরোতে পারেন না এবং পরবর্তীতে এ থেকে অবসাদ তৈরি হতে পারে। কিংবা আরও জটিল মানসিক সমস্যা তৈরি হতে পারে।

শারীরিক পরিশ্রমের অভাব

সারাদিন কম্পিউটারে বসে কাজ, গাড়িতে চড়েই সব জায়গায় যাওয়া, বাড়িতেও শুয়ে বসে মোবাইল নিয়ে থাকা। ফলে শারীরিক পরিশ্রম তো দূরের কথা, খুব বেশি হাঁটাচলা করারও সুযোগ মিলছে না। গবেষণা বলছে—বসে থাকলে শরীরে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। তাছাড়াও নানা রকম রোগ দেখা যায়। হাড়ের সমস্যা, হজমের গোলমাল, ওবেসিটির মতো নানা রকম সমস্যা তৈরি হতে পারে শরীরে।