মার্কিন ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশের নবায়নযোগ্য জ্বালানি, জাহাজ নির্মাণ, অটোমোবাইল এবং ওষুধ শিল্পে বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি শুধুমাত্র মার্কিন বিনিয়োগকারীদের জন্য একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল রাখারও প্রস্তাব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

ওয়াশিংটনের স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার সকালে ‘ইউএস-বাংলাদেশ ইকোনমিক পার্টনারশিপ-শেয়ার্ড ভিশন ফর স্মার্ট গ্রোথ শীর্ষক’ উচ্চ পর্যায়ের এক গোলটেবিল বৈঠকে এসব জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে নবায়নযোগ্যযোগ্য জ্বালানি, জাহাজ নির্মাণ, অটোমোবাইল, ফার্মাসিউটিক্যালস, আইসিটি, সামুদ্রিক সম্পদসহ গতিশীল ও সম্ভাবনাময় খাতগুলোথৈ বিনিয়োগের আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। আমাদের লক্ষ্য ২০৪১ সালের মধ্যে একটি স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তোলা।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী দুই দেশের বিজনেস কাউন্সিল বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতা এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলেও আশা প্রকাশ করেন। পাশাপাশি ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সাথে থাকার জন্যও ব্যবসায়ীদের আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের সবচেয়ে উদার বিনিয়োগ নীতির কথা উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশে আইন দ্বারা বিদেশি বিনিয়োগ সুরক্ষা, ট্যাক্স হলিডে, রয়্যালটি রেমিটেন্স ও মূলধন সম্পূর্ণ প্রত্যাবর্তনের সুবিধা রয়েছে। বাংলাদেশ বিনিয়োগের পরিবেশ উন্নত করতে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিচ্ছে।

বাংলাদেশ এখন সর্বজনীনভাবে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে স্বীকৃত বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।