সাজগোজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়, যদি শেষে একটু সুগন্ধি না মাখেন। বিশেষ করে এই গরমে সুগন্ধির ব্যবহার খুবই জরুরি। এমনিতে গরমে ঘাম হচ্ছে বেশি। ঘামের দুর্গন্ধ থেকে নিজেকে দূরে রাখতে সুগন্ধি ছাড়া উপায় নেই। কিন্তু অনেক সময় সুগন্ধি মেখেও কোনও লাভ হয় না। কারণ সুগন্ধ দীর্ঘস্থায়ী হয় না অনেক ক্ষেত্রেই। অনেক সময় ব্যবহারের ভুলেই এমন হয় মূলত। সুগন্ধির ভুল ব্যবহার কিন্তু শরীরের উপরেও প্রভাব ফেলতে পারে।

অনেকেই জেনে অথবা না জেনেই ত্বকে সরাসরি পারফিউম ব্যবহার করেন। এই ধরনের সুগন্ধিতে থাকে তেল এবং অ্যালকোহলের মিশ্রণ। বেশকিছু সুগন্ধিতে আবার রাসায়নিকও থাকে। এর ফলে ত্বকে মারাত্মক ক্ষতির আশঙ্কা থেকে যায়।

ত্বকে সরাসরি পারফিউম মাখলে কী কী সমস্যা হতে পারে?

পারফিউমে থাকা অ্যালকোহল ত্বকের আর্দ্রতা শোষণ করে নেয়। ফলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। কখনও কখনও পারফিউমে থাকা নিউরোটক্সিনগুলি স্নায়ুতন্ত্রকেও প্রভাবিত করতে পারে।

এই অভ্যাসের ফলে ত্বকে ঘা হতে পারে। ত্বকের যে স্থানে পারফিউম ব্যবহার করছেন, সেখানে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারে। এগুলিতে উপস্থিত কিছু রাসায়নিক হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট করতে পারে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, সুগন্ধিতে ব্যবহৃত অনেক রাসায়নিক ত্বকে ক্যানসারের আশঙ্কা বাড়িয়ে তোলে। তাই যে কোনও সুগন্ধি ব্যবহারের আগে তার উপকরণগুলি একটু যাচাই করে নেওয়াই শ্রেয়।

চেষ্টা করুন জামাকাপড়ে পারফিউম ব্যবহার করার। যদি একান্তই ত্বকে ব্যবহার করতে হয়, সেক্ষেত্রে এটি সরাসরি ত্বকে প্রয়োগের আগে ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। তার উপরে পারফিউম লাগান।