পানি পান করার কোনো বিকল্প নেই। শরীরের আর্দ্রতা জোগাতে পানিই একমাত্র ভরসা। দিনে ৬-৭ গ্লাস পানি পান না করলে পানিশূন্যতার সৃষ্টি হতে পারে শরীরে।

তবে পানি পান করার সঠিক নিয়ম অনেকেরই অজানা। আর এ কারণে অনেকেই হয়তো ব্যস্ততার খাতিরে কিংবা অভ্যাসবশত দাঁড়িয়ে পানি পান করেন। এর কিন্তু পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া আছে।

ভারতীয় সেলিব্রিটি যোগবিদ ও হলিস্টিক ওয়েলনেস এক্সপার্ট আনুষ্কার তার ইনস্টাগ্রাম পোস্টে জানিয়েছেন, দাঁড়িয়ে পানি খেলে বদহজম ও অম্বল হতে পারে। এটি আর্থ্রাইটিসের সমস্যা বাড়ায় এমনকি ফুসফুসেরও ক্ষতি করতে পারে।

আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞদের মতে, দাঁড়িয়ে পানি খেলে ইসোফেগাসের মারাত্মক ক্ষতি হয়। যে কারণে গ্যাস্ট্রো ইসোফেগাল রিফ্লাক্স ডিজিজে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি যায় বেড়ে।

পানি পান করার সঠিক উপায় কী?

পানি পান করার সঠিক উপায় হলো, পিঠ সোজা করে বসে পান করা। এভাবে পানি মস্তিষ্কে পৌঁছায় সহজভাবে। ফলে মস্তিষ্কের কার্যকলাপ উন্নত হয়। এটি হজমে সহায়তা করে ও পেটের ফোলাভাবও কমায়।

এছাড়া তামার পাত্রে পানি সংরক্ষণ করে পান করার অভ্যাসও খুব ভালো। তামার শীতল বৈশিষ্ট্য শরীরকে ডিটক্সিফাই করতে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে ও রক্ত স্বল্পতা দূর করতে সাহায্য করে।

আর অবশ্যই পানি পান করার সময় একবারে প্রচুর পরিমাণে চুমুক দেওয়ার পরিবর্তে অল্প অল্প করে চুমুক দিয়ে পানি পান করতে হবে।