নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় এক বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী শিশুকে (১০) রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত অটোরিকশাচালক সোহাগকে (২৪) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রামগতি থেকে ওই অটোরিকশাচালককে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার সোহাগ রামগতি পৌরসভার আলেকজান্ডার এলাকার মজনুর ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সোহাগ পেশায় অটোরিকশাচালক। তিনি রামগতি ও সুবর্ণচরের বিভিন্ন স্থানে অটোরিকশায় ওষুধ পৌঁছে দেওয়ার কাজ করেন।

গত সোমবার বিকাল ৪টার দিকে সুবর্ণচরের বেড়িবাঁধের মাথা থেকে অটোরিকশা নিয়ে নতুনবাজার যাচ্ছিল সোহাগ।

পথে চরপানা উল্যাহ এলাকায় সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী শিশুকে দেখতে পায়। এ সময় সোহাগ অটোরিকশাটি দাঁড় করিয়ে শিশুটিকে কৌশলে পার্শ্ববর্তী একটি ব্রিজের নিচে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। শিশুটি চিৎকারে একজন পথচারী বিষয়টি দেখে ফেললে সোহাগ অটোরিকশা রেখে দ্রুত পালিয়ে যায়।

চরজব্বার থানার ওসি মো. জিয়াউল হক জানান, গত সোমবার রাতে ওই শিশুর বড় ভাই বাদী হয়ে সোহাগকে আসামি করে একটি মামলা করেন। মঙ্গলবার রাতে আলেকজান্ডার এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত সোহাগকে গ্রেফতার করা হয়। একই দিন শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।