নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে অভিযান চালিয়ে অনিয়মের অপরাধে ৩৮টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (৫ এপ্রিল) ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালকের নির্দেশে দিনব্যাপী অভিযান চালিয়ে এসব প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়। অভিযানকালে করোনা মোকাবিলায় অধিদফতরের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

এ দিন রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস, ঢাকা জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল, ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মাগফুর রহমান ও প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক প্রণব কুমার প্রামাণিক।

এছাড়া ঢাকার বাইরে বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক ও জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালকের নেতৃত্বে বিভিন্ন বাজারে তদারকি ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।বাজার অভিযানকালে ভোজ্যতেল, চাল, পেঁয়াজ, ছোলা, চিনি ও খেজুরসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য যৌক্তিক মূল্যে বিক্রয় হচ্ছে কি না তা মনিটর করা হয়। এ সময় পণ্যের মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করা, মূল্যতালিকার সাথে বিক্রয় রসিদের গরমিল, পণ্যের ক্রয় রসিদ সংরক্ষণ না করা, অনিবন্ধিত, মেয়াদোত্তীর্ণ নকল পণ্য বিক্রয়, ওজনে কারচুপিসহ ভোক্তা স্বার্থবিরোধী বিভিন্ন অপরাধে সারাদেশে ৩৮টি প্রতিষ্ঠানকে ১ লাখ ১৯ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়।

বাজার তদারকির পাশাপাশি অধিদফতরের পক্ষ থেকে বিভিন্ন শ্রেণির ভোক্তা ও ব্যবসায়ীর মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয় এবং ভোক্তা ও ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে পণ্য ক্রয় বিক্রয়ের জন্য সচেতন করা হয়।

এ প্রসঙ্গে অধিদফতরের মহাপরিচালক বাবলু কুমার সাহা বলেন, নিয়মতান্ত্রিক ও নৈতিকতার সাথে ব্যবসা পরিচালনাকারী সব ব্যবসায়ীকে এ অধিদফতর সবসময় সাধুবাদ জানায়। ভোক্তা ও ব্যবসাবান্ধব একটি সুশৃঙ্খল বাজারব্যবস্থা গড়ে তোলার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান তিনি।

এছাড়া মাস্ক পরার প্রতি গুরুত্বারোপ করে সংশ্লিষ্ট সবাইকে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পণ্য ক্রয়-বিক্রয়ের অনুরোধ জানান বাবলু কুমার সাহা।