চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন অবাধ সুষ্ট ও নিরপেক্ষ করতে ৭ ধরণের যানবাহন চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সিএমপি। সোমবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে এ সংক্রান্ত একটি গণ বিজ্ঞপ্তি জারি করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

সিএমপি কর্তৃক জারিকৃত বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) মধ্য রাত থেকে ২৭ জানুয়ারী নির্বাচনের পরের দিন পর্যন্ত ট্রাক, পিক আপ, বেবী টেক্সী/অটোরিক্সা/ ইজিবাইক, মাইক্রোবাস, কার, জীপ ও মোটর সাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে।

নগর পুলিশের জনসংযোগ কর্মকর্তা শাহ আব্দুর রউফ বার্তা বাজারকে বলেন, নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে, গত রবিবার চট্টগ্রামে এক সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার মোটরসাইকেল ও ট্রাক ব্যথিত কোন গণপরিবহন চলাচলে বাধা থাকবে না বলে জানান।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, উপরোল্লিখিত নিষেধাজ্ঞা সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং অফিসারের অনুমতি সাপেক্ষে প্রার্থী ও তাঁদের নির্বাচনী এজেন্ট, দেশী বিদেশী পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র বহন সাপেক্ষে) ক্ষেত্রে শিথিলযোগ্য। তাছাড়া নির্বাচনের সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশীও বিদেশী সাংবাদিক (পরিচয়পত্র বহন সাপেক্ষে), নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, নির্বাচনে বৈধ পরিদর্শক এবং কতিপয় জরুরী কাজ যেমন- এ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, বিদ্যুৎ, গ্যাস, ডাক ও টেলিযোগাযোগ ইত্যাদি কার্যক্রম ব্যবহারের জন্য উল্লিখিত যানবাহন চলাচলের ক্ষেত্রে উক্ত নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়াও জাতীয় মহাসড়ক, বন্দর ও জরুরি পণ্য সরবরাহসহ অন্যান্য জরুরী প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জারিকৃত নিষেধাজ্ঞা শিথিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবেন।