শীত এখনো জাঁকিয়ে না আসলেও কুয়াশার চাঁদর মুড়ি দিয়ে আসে ভোর। সকালের মিষ্টি রোদে আড়মোড়া ভেঙে বাড়ে কর্মচঞ্চলতা। আমাদের দেশে শীতের সময় অনেকে নিয়মিত গোসল করতে চান না। এই অভ্যাস একদম ঠিক নয়। গোসল না করলে ত্বক আর্দ্রতা হারিয়ে খসখসে হয়ে পড়ে। এই শীতে গোসল করা অনেকের কাছেই সবচেয়ে কঠিন সমস্যা। অনেকেই গরম পানিতে গোসল করেন, আবার অনেকে ঠান্ডা পানিতে।

তবে, কোন পানিতে গোসল করা বেশি উপকার বা ক্ষতি তা জানেন না অনেকেই। আসুন সেই বিষয়গুলো জেনে নেই-

# খুব গরম পানিতে গোসল করা কিন্তু শরীরের পক্ষে মোটেও ভালো না। ত্বকের ফলিকলগুলোকে নষ্ট করে দেয়। গোসলের সময় মাথায় অতিরিক্ত গরম পানির ব্যবহার, চুলকে যেমন ক্ষতিগ্রস্ত করে তেমনি মস্তিস্কের ওপরেও চাপ সৃষ্টি করে। সেই কারণে আমাদের প্রত্যেকেরই উচিত, মাথায় ঠান্ডা পানি ব্যবহার করা।

# অতিরিক্ত গরম পানি ব্যবহার করলে মুখে ব্রণ হয়। অ্যাসিডিটি-র সমস্যাতেও চিকিৎসকেরা পুরোপুরি গরম পানিতে গোসল করতে বারণ করে থাকেন। এছাড়া মানসিক বিষণ্ণতাতেও গরম পানিতে গোসল করার নেতিবাচক প্রভাব পড়ে।

# যাদের হার্টের সমস্যা রয়েছে, গরম পানির ব্যবহার, তাদের কার্ডিওভাসকুলার সিস্টেমের ওপর প্রভাব ফেলে।

# ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করলে টনসিল, সর্দি, কাশি প্রভৃতি বিভিন্ন শারীরিক উপসর্গের উৎপত্তি ঘটবে। ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে, রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বাড়িয়ে দেয় এই অভ্যাস।

# অতিরিক্ত ঠান্ডা পানিতে গোসল, আপনার শরীরের তাপমাত্রা কমিয়ে দেয়। এতে দেহের সূক্ষ্ম টিস্যুগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হয়। নার্ভের সমস্যা দেখা দিতে পারে। যাদের বাতের ব্যথার প্রবণতা থাকে, তাদের ক্ষেত্রে ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করা একেবারেই চলবে না।