• সোমবার, ২৫শে মে, ২০২০ ইং, ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
 ‘প্রেমিকাকে’ বিরক্ত করায় অনিলের ওপর চড়াও হন সালমান!

বলিউডের জনপ্রিয় নায়ক সালমান খানের প্রেমিকাকে বিরক্ত করায় আরেক অভিনেতা অনিল কাপুরকে মারতে গিয়েছিলেন ‘ভাইজান’। ‘৯০-এর দশকের ঘটনা এটি। সালমান ও অনিলের মধ্যে সম্পর্ক আগে থেকেই ভালো ছিল। নো এন্ট্রি, বিবি নাম্বার ওয়ান, রেস থ্রি ও যুবরাজ সিনেমায় একসঙ্গে অভিনয় করেছেন তারা। এসব দেখে কে বলবে একসময় অনিলকে মারতে গিয়েছিলেন সালমান! তাও আবার প্রেমিকাকে ভাগিয়ে নেয়ার চেষ্টার অভিযোগে! সালমান তখনও অভিনয় শুরু করেননি। ইন্ডাস্ট্রিতে টুকটাক কাজ করছিলেন এবং বিভিন্ন জায়গায় অডিশন দিচ্ছিলেন। সেই সময় অনিল কাপুর ‘হামলা’ নামে একটি ছবি বানানোর পরিকল্পনা করেন। খবর জিনিউজের।

ছবির শুটিং হয় ১৯৮৭ সালে, মুক্তি পায় ১৯৯২ সালে। এই ছবির ইউনিটে একজন তরুণী সহকারীর সঙ্গে নাকি অনিল বেশ ফ্লার্ট করতেন। অবস্থা নাকি এতটাই খারাপ হয় যে এই তরুণী অস্বস্তিতে পড়তেন। শেষমেশ এই তরুণীকে অনিল কুৎসা রটানোর হুমকি দেন। এই তরুণী ছিলেন শাহিন। যিনি দীলিপ কুমারের স্ত্রী অভিনেত্রী সায়রা বানুর ভাইজি। শাহিনের কলেজের সামনে সালমান ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতেন। তিনি ভাইজানকে সমস্যার কথা খুলে বলেন।

বান্ধবীর সঙ্গে তিনি সোজা চলে গেলেন ‘হামলা’র সেটে। সেখানে সবার সামনে সরসারি কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন অনিলকে। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, সালমান নাকি ঘুষি মারতেও যাচ্ছিলেন। কিন্তু সেটে হাজির লোকজন তাকে নিরস্ত করেন। এসব তথ্য সংবাদমাধ্যমে এলে সালমান ঝামেলার ঘটনাটি অস্বীকার করেন।

কেএ/ডিএ