ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Saturday, 08 March 2014 04:49

কম্পিউটার শিক্ষাবঞ্চিত জিয়ানগরের শিক্ষার্থীরা

Rate this item
(0 votes)

জিয়ানগরে বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার শিক্ষক নেই, নেই কম্পিউটার। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োজিত থাকলেও কম্পিউটার না থাকায় শিক্ষার্থীরা কম্পিউটার শিক্ষা থেকে বঞ্চিত। এ উপজেলায় ৩টি বেসরকারি কলেজ, ১১টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১৮টি মাদ্রাসার মধ্যে অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার শিক্ষক ও কম্পিউটার না থাকায় কম্পিউটার শিক্ষার বেহাল দশা। শুধু ছাত্রদের নাম মাত্র কম্পিউটার বিষয় রেখে নবম শ্রেণীতে নাম রেজিস্ট্রেশন করা হয়। ছাত্ররা এসএসসি, এইচএসসি ও দাখিল পরীক্ষার ফরম ফিলাপের সময় জানতে পারে তাদের কম্পিউটার বিষয় আছে। ফলে কম্পিউটার শিক্ষার বিষয় শিক্ষার্থীরা দিন দিন আগ্রহ হারাচ্ছে। উপজেলা সদরে ইন্দুরকানী এমইউ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ২ বছর ধরে কম্পিউটার

শিক্ষক নেই। কয়েকটি কম্পিউটার থাকলেও এর মধ্যে অধিকাংশ অকেজো।
পত্তাশী এস দাখিল মাদ্রাসায় ২ বছর ধরে কম্পিউটার শিক্ষক নেই। ফলে ছাত্ররা কম্পিউটার শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বালিপাড়া ইউনিয়ন আলিম মাদ্রাসা, জিয়ানগর এফ. করিম আলিম মাদ্রাসা, পশ্চিম বালিপাড়া নুরিয়া দাখিল মাদ্রাসা ও বালিপাড়া ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়সহ একাধিক প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার শিক্ষক থাকলেও সেখানে কম্পিউটার নেই। কর্তৃপক্ষের অবহেলার কারণে প্রতিষ্ঠানগুলোতে কম্পিউটার সরবরাহ না করে দায়সারাভাবে কম্পিউটার বিষয়ে অনুমোদন এনে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। কম্পিউটার বিষয়ে অনেক ছাত্রছাত্রীর পাঠদানের আগ্রহ থাকলেও প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার না কেনার কারনে তারা আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জেডিসি, জেএসসি ও এসএসসি এবং দাখিল পরীক্ষার রেজি. ও ফরম পূরণ সম্পর্কিত যাবতীয় কাজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সংশিল্গষ্ট বোর্ডে পাঠাতে হয়। প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার না থাকায় এসব প্রতিষ্ঠানগুলোকে ইন্টারনেটের কাজ করতে বিভিন্ন ব্যবসায়িক দোকানে ভিড় করতে দেখা যায়। ইন্দুরকানী এমইউ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সেলিম খান জানান, একাধিকবার বিজ্ঞপ্তি দিয়েও মহিলা কম্পিউটার শিক্ষক পাওয়া যায়নি। কারণে কম্পিউটার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া যাচ্ছে না। ফলে শিক্ষার্থীদের কম্পিউটার বিষয়ে পাঠদান ও প্রশিক্ষণ দেওয়া যাচ্ছে না।