ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

হার্ডড্রাইভের গতি এবং লাইফটাইম বাড়াতে একটি সফটওয়্যার

Rate this item
(0 votes)

কম্পিউটারে হার্ডড্রাইভ একটি খুবই গুরুত্বপূর্ন অংশ। যদিও কম্পিউটারের প্রথম যুগে হার্ডড্রাইভের তেমন ব্যবহার ছিল না। কারন তখন শুধুমাত্র হিসাব নিকাশ এর জন্য কম্পিউটার ব্যবহার করা হত। দিনে দিনে মানুষ তাদের বিভিন্ন তথ্য কম্পিউটারে রাখার প্রয়োজন অনুভব করতে থাকলো, এবং হার্ডড্রাইভের প্রয়োজনীয়তাও বেড়ে গেল। শুনলে হাসি পায় যে, ৮গিগা বাইটের হার্ডড্রাইভকে এক সময় বিশাল মেমরির অধিকারী ধরা হত! তখন মনে করা হত, ১৬ গিগাবাইটের একটি হার্ডড্রাইভই ভবিষ্যতে যে কারো জন্য যথেস্ট হবে। আর এখনকার পরিস্থিতিতো আপনাদের ভালো করেই জানা আছে।

হার্ডড্রাইভের স্পীড কমে গেলে স্বভাবতই পিসির স্পীড কমে যায়। কারন ডাটা রিড করতে বেশি সময় লাগে এবং কার্যগুলো সম্পাদন হতেও সময় লাগে। আর হার্ডড্রাইভ স্লো হয়ে যাওয়ার অন্যতম কারন হলো ডাটাগুলো একটির পর একটি কাছাকাছি সাজানো না থাকা। যেমন, ছোট একটি ফাইল ডিলিট করার ফলে সেখানে একটা ফাঁকা জায়গা তৈরি হল। এবং এই জায়গাটি এতই ছোট যে অন্য কোন ফাইল রাইট করা গেল না। হার্ডড্রাইভে এরকম ছোট ছোট অনেক ফাঁকা জায়গা তৈরি হলে, ডাটা রিড করার জন্য রিড হেডকে অনেক বেশি মুভ করতে হয়। ফলে হার্ডড্রাইভ স্লো হয়ে যায় এবং সার্বিক পারফরমেন্স খারাপ হয়ে যায়।

হার্ডড্রাইভের এই সমস্যা দূর করার জন্য নিয়মিত এটি ডিফ্র্যাগ করা উচিত। নিয়মিত ডিফ্র্যাগ করলে ড্রাইভের স্পীড বাড়ার সাথে সাথে এর জীবনকালও বেড়ে যায়। উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম এর সাথে আপনি একটি ডিফল্ট ডিফ্র্যাগার পেলেও, এটি খুব একটা মানসম্মত নয়। আর তাই আপনি ব্যবহার করতে পারেন MyDefrag নামক এই সফটওয়্যারটি।

প্রথমে এই লিংক থেকে ডাউনলোড করে নিন সফটওয়্যারটি। এরপর ইন্সটল করুন। ইন্সটল করার প্রক্রিয়া অন্যান্য সফটওয়্যার এর মতই। এরপর সফটওয়্যারটি রান করে প্রয়োজনীয় একটি বা একাধিক ড্রাইভ সিলেক্ট করুন। এরপর প্রয়োজনীয় অপশন এ টিক চিহ্ন দিয়ে Run বাটন এ ক্লিক করলে কাজ শুরু হবে।