ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

জেলায় ফুটবল চালু করতে সরকারের সাহায্য চায় বাফুফে

Rate this item
(0 votes)

নবগঠিত ডিএফএ ও ডিভিএফএ-গুলোকে সক্রিয় করে জেলায় ফুটবল চালু করতে সরকারি প্রশাসনের সাহায্য চেয়েছে বাফুফে। সোমবার প্রধান উপদেষ্টার বিশেষ সহকারী, ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মাহবুব জামিলের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এই সাহায্য চেয়েছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নবনির্বাচিত কমিটি।

সোমবার দুপুরে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে আনুষ্ঠিত এই দ্বিপাক্ষিক আলোচনা শেষে বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন বলেছেন, "এটা একটা সৌজন্য সাক্ষাৎ। দেশের ফুটবল নিয়ে

বিস্তর আলাপ হয়েছে। আমরা বলেছি খেলাধুলা চালানোর জন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। প্রধান উপদেষ্টার বিশেষ সহকারী জনাব মাহবুব জামিল আমাদের স্পনসর যোগাড় করে দেওয়ার প্রতিশ্র"তি দিয়েছেন।"

তবে বিশেষ আলোচনা হয়েছে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের ফুটবল সচল করার ব্যাপারে। বাফুফের সহ-সভাপতি বাদল রায় জানিয়েছেন, "আমরা সরকারি প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়েছি ডিএফএ ও ডিভিএফএ গুলোকে কার্যকর করতে। উনি জেলা প্রশাসকদের এ ব্যাপারে নির্দেশনা দেওয়ার প্রতিশ্র"তি দিয়েছেন।" গত এপ্রিলে বাফুফে নির্বাচন উপলক্ষে ডিএফএ (জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন) ও ডিভিএফএ (বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন) গঠিত হলেও সেগুলো এখনো সেভাবে সচল হয়নি। কারণ সরকারের সঙ্গে একধরনের অদৃশ্য বৈরীতার মধ্যে দিয়ে এগুলোর জন্ম হয়েছে। তাই ডিএফএ ও ডিভিএফএ-গুলোকে জেলা প্রশাসকদের সুনজরে নিয়ে আসার জন্য ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান উপদেষ্টার বিশেষ সহকারী মাহবুব জামিলের সাহায্য চেয়েছে বাফুফে। এছাড়া জেলা পর্যায়ের মাঠগুলোকে ফুটবল উপযোগী করে তোলারও তাগিদ দিয়েছেন বাফুফে সভাপতি। বর্ষা মৌসুমের পর পরই তারা যেন জেলায় ফুটবল চালু করতে পারেন।

আলোচনা হয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে জমে থাকা ক্রীড়া খাতের তিনশ কোটি টাকা নিয়েও। এই অর্থ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে অনেকদিন ধরে পড়ে থাকলেও ক্রীড়াক্ষেত্রে তার কোনো ব্যবহার নেই। এ ব্যাপারে বাদল রায় বলেছেন, "গত সরকারের সময় এ ব্যাপারে শিক্ষা ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের মধ্যে একটি এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ নিয়ে নতুন কী করা যায় সে ব্যাপারে আমরা উনার পরামর্শ চেয়েছি। আর মাঠসহ স্কুলগুলোতে ফুটবল খেলা বাধ্যতামূলক করার প্রস্তাব দিয়েছি উনার কাছে।"

Last modified on Monday, 10 March 2014 16:23