ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

একাডেমীর আগে অ্যাস্ট্রোটার্ফ পাচ্ছে বাফুফে

Rate this item
(0 votes)

ফিফার 'গোল প্রজেক্ট দুই' এর আওতায় একটা ফুটবল একাডেমী গড়ার অর্থের জোগান পাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে)। কিন্তু সেজন্য প্রস্তাবিত তিনটি জায়গার কোনোটাই এখনো অধিগ্রহণ করা যায়নি। ফিফার ডেভলপমেন্ট ডিরেক্টর ও এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) ভাইস প্রেসিডেন্ট মনিলাল ফার্নান্ডো একদিনের সফরে ঢাকায় এসে তাই বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছেন বাফুফেকে। দেশের ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি তাতে রাজী হওয়ায় আপাতত একাডেমীর জায়গায় একটি অ্যাস্ট্রোটার্ফ পাচ্ছে তারা। যা বাফুফে ভবনের পাশেই 'বালুর মাঠ' নামে পরিচিত মাঠটিতে বসানো হবে। আর একাডেমী গড়ার বিষয়টা চলে যাবে ফিফার 'গোল প্রজেক্ট তিন' এর আওতায়। বৃহষ্পতিবার বাফুফে ভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ফার্নান্ডো নিজেই জানিয়েছেন এসব।

"গোল প্রজেক্টের অধীনে ফুটবল একাডেমীর ভবনের জন্য তিনটি জমি প্রস্তাব করা হয়েছিল। এর একটা বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) ঠিক পাশেই। কিন্তু এর কোনোটাই এখনো অধিগ্রহণ করা হয়নি। তাই আমরা গোল প্রজেক্ট দুইয়ের অধীনে তাদেরকে (বাফুফে) কৃত্রিম টার্ফ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছি"- বলেছেন ফার্নান্ডো।

তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ সরকার আগামী মঙ্গলবারের মধ্যেই অ্যাস্ট্রোটার্ফ বসানোর জন্য 'বালুর মাঠ' ছেড়ে দেবে। এবং আগামী জানুয়ারিতে কাজ শুরু করা যাবে। এর আগে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের (এনএসসি) চেয়ারম্যান জেনারেল মঈন উ আহমেদের সঙ্গে তার ফলপ্রসু আলোচনার কথাও উল্লেখ করতে ভোলেননি এই শ্রীলঙ্কান, " আজ (বৃহষ্পতিবার) এনএসসি চেয়ারম্যান এবং

সচিবের সঙ্গে আলোচনা পর্বটা খুবই ফলপ্রসু হয়েছে। এই দেশে ফুটবলের উন্নয়নে তারা খুবই উৎসাহী।"

ফুটবল একাডেমীর জন্য বিকেএসপির পাশের জায়গাটাই সবচেয়ে মনে ধরেছে ফার্নান্ডোর। জানিয়েছেন, সেখানে একাডেমী স্থাপনের জন্য গোল প্রজেক্ট তিন এর আওতায় ৪ লাখ ইউএস ডলার দেওয়ার পরিকল্পনা আছে ফিফার। জমি অধিগ্রহণের পরপরই এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। একাডেমীর জন্য বিকেএসপির পাশের জমিকে পছন্দ করার কারণ, "বিকেএসপির পাশে ফুটবল একাডেমী গড়ার সুবিধা হলো ছেলেরা সেখানকার সুবিধাগুলোও ভোগ করতে পারবে।"