ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Friday, 26 September 2014 21:30

জবিতে জালিয়াতির অভিযোগে আটক ৭

Rate this item
(0 votes)

শুক্রবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাসহ আটক হন ৩৫ জন। বিকেলে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের সম্মান প্রথম বর্ষের ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগে আটক করা হয়েছে সাতজনকে। এ বিশ্ববিদ্যালয়েও জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বিকেলে জবির ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে যাদের আটক করা হয়েছে এরা কেউ প্রক্সি দিচ্ছিলেন আবার কেউ মোবাইলে ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে পরীক্ষায় জালিয়াতি করছিলেন। বিভিন্ন পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে আটকের পর তাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের রুমে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

 

আটককৃতরা হলেন- সাদিকুল ইসলাম, জিয়াদ খান, মেহেদি হাসান, আরিফ নেওয়াজ, মাসুদ রানা, পলাশ, রাকিবুল হাসান।

 

সাদিকুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে হাবিবুল্লাহ বাহার কলেজ কেন্দ্র থেকে। ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে তাকে জালিয়াতিতে সহযোগিতা করেছেন জবির আইন বিভাগের ছাত্র মিঠু।

 

সেগুন বাগিচা হাইস্কুল থেকে আটক করা হয় জিয়াদ খানকে। তাকে সহযোগিতা করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম। কামরুল জবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম সিরাজুল ইসলাম গ্রুপের কর্মী। জিয়াদ কবি নজরুল কলেজের ছাত্র।

 

আরিফ নেওয়াজকে আটক করা হয়েছে বাংলাবাজার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে।

 

বোরকা পরে, কানে দুল দিয়ে ভর্তিচ্ছু এক শিক্ষার্থীর হয়ে প্রক্সি-পরীক্ষা দিতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা পড়েছেন জবির ইংরেজি বিভাগের ছাত্র মেহেদি হাসান নয়ন।

 

জবিরই ইংরেজি বিভাগের আরেক ছাত্র মাসুদ রানা। তিনি ধরা পড়েছেন জুবিলি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে। তাকে সহযোগীতা করছিলেন তরিকুল ইসলাম। মাসুদ প্রক্সিও দিচ্ছিলেন আবার মোবাইলে ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে জালিয়াতিও করছিলেন।

 

পলাশকে আটক করা হয়েছে সিদ্ধেশ্বরী স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে। মাসুদ রানার মতো পলাশও দুই ধরনের জালিয়াতির সঙ্গেই জড়িত।

 

রাকিবুল হাসানকে আটক করা হয়েছে বদরুন্নেসা মহিলা কলেজ থেকে।

 

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টার মধ্যে এদের সবাইকে আটক করা হয়েছে।

 

তবে জবি ক্যাম্পাস থেকে কোনো জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

 

আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।