ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Friday, 28 February 2014 21:39

শরণার্থী সংখ্যায় বিশ্বে সবাইকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে সিরিয়া

Rate this item
(0 votes)

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী আফগান শরণার্থীর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি হলেও তা প্রায় ছাড়িয়ে যেতে বসেছে সিরীয় শরণার্থীর সংখ্যা। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাই কমিশনার এন্টনিও গুটারেসসহ অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তারা একথা বলেছেন।

সিরিয়ার ৯৩ লাখ মানুষ যুদ্ধের ক্ষতির শিকার হয়ে এখন জরুরি সাহায্যের অপেক্ষায় আছে। গত তিন বছরের যুদ্ধে দুর্দশাগ্রস্ত হয়ে ঘরবাড়ি ছেড়েছে ২৪ লাখেরও বেশি

সিরীয়। অথচ দেশটির মোট জনসংখ্যা ছিলো দুই কোটির কাছাকাছি।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদে ১৯৩ সদস্য রাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের উদ্দেশ্য সিরিয়া পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্যে গুটারেস বলেন, “যে দেশটি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শরণার্থীদেরকে আশ্রয় দিত তাদের এই পরিণতি আমাকে মর্মাহত করছে।”

জাতিসংঘের ত্রাণ বিষয়ক উপ-প্রধান কর্মকর্তা কাইয়াং-ওয়া কাং জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে বলেন, সিরিয়ায় যুদ্ধের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৩ লাখ শিশু। এছাড়া, আরো ১২ লাখ শিশু উদ্বাস্তু হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা সময়ের উল্টো দিকে চলছি। সংঘাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের ঢল আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে।

সিরিয়ায় মানবিক ত্রাণ সরবরাহের সুযোগ চেয়ে এবং সরকারি বাহিনীর ব্যারেল বোমা ও অন্যান্য মরণাস্ত্রের ব্যবহার বন্ধে সর্বসম্মত প্রস্তাব পাস হয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে। প্রস্তাবনা না মানলে এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও হুঁশিয়ার করা হয়েছে।

জাতিসংঘ কূটনীতিক বলেন, সিরিয়া এ প্রস্তাবনা বাস্তবায়ন না করলে দেশটির বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপে যেতে সস্মত নয় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের মিত্র রাশিয়া । তবে পশ্চিমা কূটনীতিকরা প্রস্তাব অমান্যের জন্য দেশটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার পক্ষে জোর অবস্থানে রয়েছে।

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান নাভি পিল্লাই বলেছেন, শুধুমাত্র গত ফেব্রুয়ারিতে সিরিয়ায় ব্যারেল বোমার শিকার হয়ে শত শত মানুষের প্রাণহানি হয়েছে।

তিনি বলেন, গত ডিসেম্বরের ১৫ থেকে ২৮ তারিখের মধ্যে ১২ জেলায় আবাসিক এলাকা, মার্কেটে, স্কুল, হাসপাতাল ও বাস স্ট্যান্ডে ব্যারেল বোমা হামলায় শত শত মানুষ নিহত হয়।

Last modified on Monday, 10 March 2014 00:46