ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Monday, 08 September 2014 16:25

স্ত্রী নির্যাতনে দক্ষিন এশিয়ায় বাংলাদেশ শীর্ষে Featured

Rate this item
(0 votes)

স্ত্রী নিপীড়নের ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষে। বাংলাদেশে প্রতি ৫ জনের ১জন বিবাহিত নারী স্বামীর হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে। আর বিশ্বে প্রতি ১০ জনে একজন মেয়ে ১৯ বছর বয়স পেরোনোর আগেই ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়নের শিকার হয়।

গতকাল শুক্রবার প্রকাশিত ‘হিডেন ইন প্লেইন সাইট’ (দৃষ্টির মধ্যেই সুপ্ত) শীর্ষক জাতিসংঘ শিশু তহবিল (ইউনিসেফ)-এর একটি রিপোর্ট থেকে এই তথ্য জানা যায়। ১৯০টি দেশ থেকে তথ্য-উপাত্ত নিয়ে এই রিপোর্টটি তৈরি করা হয়।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের পরে রয়েছে ভারত ও নেপালের অবস্থান। ৪২টি দেশের তথ্য নিয়ে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছে। প্রকাশিত প্রতিবেদনে দেখা যায়, দক্ষিণ এশিয়ায় প্রতি ১০ জনে ১ জন স্বামীর হাতে যৌন নিপীড়নের শিকার হয়। বাংলাদেশে স্বামীর হাতে স্ত্রীর যৌন নির্যাতনকে একটি স্বাভাবিক ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

স্বামী বা সঙ্গীর দ্বারা নির্যাতন
সারা বিশ্বে বিবাহিত কিশোরীদের (১৫ থেকে ১৯ বছর) মধ্যে শারীরিক, যৌন বা মানসিক নির্যাতনের শিকার হয় প্রতি তিনজনে একজন। এই হার সবচেয়ে বেশি ইকুয়েটোরিয়াল গিনিতে, ৭৩ শতাংশ। আর সবচেয়ে কম ইউক্রেনে, ২ শতাংশ। দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে এই হার সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশে, ৪৭ শতাংশ। ১৯০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান এ ক্ষেত্রে ৭ নম্বরে। এরপর ভারত, পাকিস্তান ও নেপালে এই হার যথাক্রমে ৩৪, ২৮ ও ২৩ শতাংশ।

বিয়ের পর নির্যাতন
প্রতিবেদনে বলা হয়, কম বয়সে বিবাহিত মেয়েরা পরিবারের মধ্যে স্বামী বা অন্য সদস্যদের দ্বারা বেশি নির্যাতনের শিকার হন।