ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

‘মানুষ খুন করেছেন ফেরির ক্যাপ্টেন’

Rate this item
(0 votes)

দক্ষিণ কোরিয়ার ডুবে যাওয়া ফেরির ক্যাপ্টেন মানুষ খুন করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন হায়। এই ঘটনা মেনে নেয়া যায় না এবং দোষীদের কঠিন শাস্তি দেয়া হবে বলেও ঘোষণা দিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট। ফেরি দুর্ঘটনায় এ পর্যন্ত ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে ২৩৮ জন।

এখন কেবলেই প্রার্থণা পাঁচদিনে চোখের জল এরই মধ্যে শুকিয়ে এসেছে।

প্রিয় সন্তানকে কাছে পাওয়ার হিসেব নিকেশেও এখন ক্ষীণ। সন্তান হারা পিতামাতার কন্ঠে ঝড়ে পড়ছে ক্ষোভ। ৪৭৬ জনের মধ্যে মাত্র ১৭৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে পেরেছে সরকার।তাই প্রশ্ন ওঠেছে উদ্ধার অভিযান নিয়েও।

সন্তানহারা একজন বলেন,” আমার সন্তান মারা গিয়ে থাকলে শুধু লাশ দিলেই হবে এর চেয়ে ঐখন আর বেশি কিছূ চাই না।”

ক্ষোভ ঝড়ে পড়লো দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কন্ঠেও। সরাসরি বললেন মানুষ খুন করেছেন ফেরির ক্যাপ্টেন এবং ক্রু।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট পার্ক গিউন হায় বলেছেন,” ফেরির ক্যাপ্টেন এবং ক্র যা করেছেন তা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ। তাদের আচরণ মানুষ খুন করার মতো। কোনোভাবেই তাদের ছাড় দেয়া হবে না।”

এরই মধ্যে ফেরির ক্যাপ্টন এবং ক্রুদের আটক করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ফেরি ডুবতে শুরু করার পাঁচ মিনিটের মধ্যে ট্রাফিক সেন্টার থেকে ফেরিটি খালি করার নির্দেশ দেয়া হলেও, ক্যাপ্টেন আধা ঘণ্টা পর তা পালন করেন।

সেউল নামের ফেরিটি গত বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ায় উপকূলে ডুবে যায়। অবকাশ যাপনের জন্য জেজু দ্বীপের উদ্দেশে ইনচিওন বন্দর থেকে রওনা হয়েছিল ফেরিটি।