ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

নবদেশ ডেস্ক

ধর্মভিত্তিক দলগুলোর আন্দোলনের প্রস্তুতি!

দেশের ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দলগুলো আবারো নতুন করে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করছে।

গত বছর হেফাজতে ইসলামের ব্যানারে ১৩ দফা দাবি নিয়ে ইসলামি দলগুলো একত্রিত হয়ে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলেছিল। তখন কিছুটা হলেও সরকারকে বিপাকে ফেলে দিয়েছেল তারা। দেশের সাধারণ জনগণও ধর্মীয় সেন্টিমেন্টের কারণে তাদের আন্দোলনকে সমর্থন দিয়েছিল।

তোবা গার্মেন্টসে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া : আটক ৩

ঢাকা : উত্তর বাড্ডায় তোবা গার্মেন্টসের সামনে অন্দোলনের সময় পুলিশের সঙ্গে শ্রমিক সংগঠনের নেতাদের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় তিন শ্রমিক নেতাকে আটক করা হয়।

এদিকে পুলিশের লাঠি পেটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক শামীমা লুৎফা ও জাহাঙ্গিরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সামিয়া নুসরাত আহত হয়।

বন্ধ-হচ্ছে-না-ভারতীয়-চ্যানেল

ঈদ বাজারের ‘পাখি’ পোশাক নিয়ে সারাদেশ জুড়ে অসংখ্য ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় বাংলা চ্যানেল স্টার জলসার একটি সিরিয়ালের ‘পাখি’ চরিত্রের নামে তৈরি মেয়েদের এই পোশাক ঈদে নিতে না পেরে আত্মহত্যা এবং তালাকের মতো ঘটনাও ঘটেছে।

আত্মহত্যার মতো ঘটনা ঈদের আনন্দে ভাটা ফেলার কারণ স্টার জলসার মতো চ্যানেলগুলোর সিরিয়াল। স্টার জলসা ছাড়াও ভারতীয় কয়েকটি চ্যানেলের বাংলাদেশে সম্প্রচার বন্ধের দাবি উঠলেও সরকারের পক্ষ থেকে এর কোনো উদ্যোগ নেই। তবে ডাউনলোড লিঙ্ক ফি বাড়ানো হবে।

বুধবারের মধ্যে বেতন না পরিশোধ হরতাল

তোবা গ্রুপের শ্রমিকদের বকেয়া বেতন-ভাতা বুধবারের মধ্যে না দিলে হরতালের মতো কর্মসূচি দেবে বলে হুমকি দিয়েছে তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটি।

মঙ্গলবার বিজিএমইএ ভবন ঘেরাও কর্মসূচিতে এই হুমকি দেন তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটির নেতা মাসুদ করিম পথিক।

এ সময় তিনি বলেন, শ্রমিকদের বেতন-বোনাস নিয়ে মালিকরা নানা ধরনের তালবাহানা করে যাচ্ছেন। ঈদে যখন শ্রমিকরা না খেয়ে ছিলেন, তখন মালিকরা দেশের বাহিরে গিয়ে ফুর্তি করেছেন।

খালেদা জিয়া দেশে ফিরেছেন

পবিত্র ওমরাহ পালন শেষে সৌদি আরব থেকে দেশে ফিরেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

শনিবার রাত ৮টা ২০ মিনিটে অ্যামিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে করে হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি।

বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে রাত ৮টা ৩০ মিনিটে বিমানবন্দরের বাইরে আসেন বিএনপির চেয়ারপারসন। এ সময় স্বাগত জানাতে সেখানে আগ থেকে অপেক্ষারত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বেগম জিয়াকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

প্রতিবাদ করায় ইস্ট ওয়েস্ট বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন ছাত্র বহিষ্কার!

কিছুদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির লিফট, এয়ার কন্ডিশন এবং স্টাডি রুমের সংষ্কারের দাবিতে ফেসবুক ইভেন্ট এর মাধ্যমে বেশ কিছুশিক্ষার্থীআন্দোলনে নামেন। অসহনীয় গরমে তাদের দাবি ছিল ক্লাস রুম এর এয়ার কন্ডিশন গুল ঠিক করে দেওা। প্রশাসনকে বেশ কয়েকবার লিখিত ভাবে জানানো হলেও কোন কাজ না হওয়ায় ছাত্র ছাত্রীরা বিশ্ববিদ্যালয় এর গ্রাউন্ড এ একত্রিত হয়ে স্লোগান দেওা শুরু করল। প্রতিদিন প্রায় দুই থেকে তিনশ ছাত্র ছাত্রী আন্দলনে যোগদান করত। এভাবে চার থেকে পাঁচদিন আন্দোলন করায় প্রশাসন চাপের মুখে পরে সব ক্লাস রুম এর এ সি গুল সচল করা শুরু করে।

কিন্তু কিছুদিন পর ই আন্দোলনের প্রধান ৬ জন সিনিওর ছাত্র কে নিয়ে ভারসিটি তে মিটিং হল যার ফলাফল ছিল যে তাদের মধ্যে তিন জন কে বহিষ্কার করার আদেশ। উল্লেখ্য যে, এই তিন জন সিনিওর ছিল বলে বিভিন্ন সময় ভার্সিটির টিচারদের সাথে আন্দোলনের বেপারে বিভিন্ন কথা বলতেন এবং এগিয়ে যেতেন।

বহিষ্কার হতে যাওয়া ৩ শিক্ষার্থী হচ্ছেন, শেষ সেমিস্টারের তড়িৎ কৌশল বিভাগেএ ছাত্র আব্দুল্লাহ আল মাহফুজ জাকারিয়া, ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের শেষ সেমিস্টারের ছাত্র কাজি মাহবুবুল হাসান তমাল এবং ব্যবসায় প্রশাসন এর ৫ম সেমিস্টারের ছাত্র তানভীর আহমেদ সিদ্দিকি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী নবদেশকে বলেন –তখন ক্লাস করতে আমাদের খুবই সমস্যা হত। কোন ক্লাস এই এ সি চলত না এবং শিক্ষকরা লেকচার বলতে অসুবিধা হয় এই অজুহাতে ফ্যানও বন্ধ রাখত সবসময়। তাই সকল ছাত্রদের আগ্রহেই আন্দলের ডাক দেওা হয় যা প্রাথমিক ভাবে এ সি সচল এর দাবিতে হলেও পরবর্তীতে লিফট ও স্টাডি রুম এর সংস্কারও যোগ হয়। আন্দোলনে আমরা সফলও হই তবে হটাথ এভাবে তিন জন ছাত্রকে বহিষ্কার কোন ভাবেই মেনে নেওা যায়না। বহিষ্কার করলে আমরা যারা যারা আন্দোলন করেছিলাম অর্থাৎ প্রায় ৩০০ স্টুডেন্ট কেই বহিষ্কার করা উচিত।

আরেক ছাত্র বলেন, তখন গরমের মধ্যে প্রায় ২ মাস আমাদের ক্লাস এর এ সি গুল বন্ধ থাক্লেও ফ্যাকাল্টি, ভিসি,রেজিস্টার, চেয়ারম্যানসবার রুম এর এ সি ঠিক ই সচল থাকতো। আমার কথা হল যে আসলেই যদি এ সি তে সমস্যা হত তাহলে পুরো ভার্সিটিতেই বন্ধ থাকতো বরং শুধু মাত্র ক্লাস রুম এ নয়। আমার ধারনা এ সি গুল বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার জন্যই বন্ধ রাখা হত।
তিনি আরো বলেন যে প্রায় সাত লক্ষ টাকা খরচ করে এখানে একজন পাশ করে, তাও যদি আমাদের ক্লাস রুম এ এ সি, একটা স্টাডি রুম, লিফট এসকল সাধারণ সুবিধা দেওার প্রতিশ্রুতি দিয়েও না দেয় তাহলে তা সত্যিই লজ্জাজনক।

বহিষ্কার হতে যাওয় তানভির আহমেদ সিদ্দিক এর ফেসবুক স্ট্যাটাস টা গতকাল ছিল এরকম ‘Keep me in your prayers dear brother and sister..Iwanna continue my study, wanna. be a banker,wanna support my family’

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরাট অভিযোগ আসছে ছাত্র ছাত্রী দের নিকট থেকে।

শিক্ষার্থীদের এসব অভিযোগ সর্ম্পকে কথা বলতে কয়েকবার উপাচার্য অধ্যাপক আহমেদ শফির অফিসে যোগাযোগ করা হলেও কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

ওজন কমানোর ১০ খাদ্য

অতিরিক্ত ওজন? মুটিয়ে যাওয়ায় চিন্তিত হয়ে পড়েছেন? অথচ খাবার-দাবারে আপনার কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। যখন যা পাচ্ছেন গোগ্রাসে গিলছেন। ওদিকে ব্যয়াম করে ঘাম ঝরাচ্ছেন ঠিকই, কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না।

পুষ্টিবিদরা বলছেন, অতিরিক্ত-অপুষ্টিকর খাবার খেয়ে পরিশ্রম করলেও কোনো কাজে আসবে না। এর পাশাপাশি নির্দিষ্ট কিছু খাবারই পারে আপনার বেড়ে যাওয়া ওজনের লাগাম টেনে ধরতে। অবশ্য বাজারে আজকাল দ্রুত ওজন কমানোর নানা পথ্য পাওয়া গেলেও সেটা স্বাস্থ্যর জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। তাই আসুন ব্যয়ামের পাশাপাশি খাবারেও সচেতন হই।

ক্যালসিয়াম
আপনি হয়ত ছোট বেলা থেকে শুনে শুনে বড় হয়েছেন যে ক্যালসিয়াম হাড় ও দাঁত গঠনে সাহায্য করে। এবার নতুন করে জেনে নিন ক্যালসিয়াম ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। দুধের মতো অন্যান্য ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবারে খুবই অল্প পরিমাণে ফ্যাট থাকে। তাই বেশি বেশি ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার খান।

আপেল
কথায় আছে, ডাক্তারের কাছ থেকে ওজন কমানোর পরামর্শ নেওয়ার প্রয়োজন হবে না যদি আপনি নিয়মিত নিয়মিত আপেল খান। আপেলে দেহে চর্বি কমাতে সাহায্য করে এমন চর্বি কোষ ধ্বংস করে।

আখরোট
আখরোটে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাট আলফা-লিনোলেনিক অ্যাসিড থাকে যা দেহের মেদ ঝরাতে সাহায্য করে।

মটরশুটি
মটরশুঁটিতে অল্প চর্বি, স্বল্প গ্লাইসেমিক ইনডেক্স, উচ্চমাত্রায় আঁশ ও প্রোটিন থাকে। নিরামিষভোজীদের এ খাদ্যটি দেহের ফ্যাট কমাতে দারুণ উপকারি।

আদা
আদার অনেক গুণ। অনেকে আদাকে জাদুকরি খাদ্য বা ম্যাজিক্যাল ফুড বলেন। এটি হজম সমস্যা দূরীরকরণ, অতিরিক্ত ক্যালরি নষ্ট, প্রদাহ রোধ, রক্ত চলাচল বৃদ্ধি ও পেশি পুনরুদ্ধারে সাহায্য করে।

জইসমৃদ্ধ খাবার
সকালে হাঁটার পর যখন নাস্তা খেতে বসবেন সেখানে অবশ্যই জইসমেত খাবার রাখুন। তাহলে ব্লাড সুগার ও ইনসুলিনের মাত্রা ঠিক থাকবে। স্লো ডাইজেস্টিং ফুড হবার কারণে আপনার ওজন কমিয়ে আনবে জই।

সবুজ চা
সবুজ চায়ের বহুবিধ গুণের কথা হয়ত অনেকেই জানেন। আর এটিও নিশ্চয় জানেন এই চা কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে ওজন কমাতে পারে।

ঝাল মরিচ
চর্বি-ক্যালরি পুড়িয়ে দেহের মেটাবোলিজম বৃদ্ধিতে সহায়ক ঝাল মরিচ। তাই খাবারের সঙ্গে ঝাল মরিচ খেতে কোনো বারণ নেই।

পানি
যদিও পানি কোনো খাদ্য নয়, তারপরও সুস্বাস্থ্যের জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে। এটি দেহের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। বেশি বেশি পানি খেলে দেহে ফ্যাট কমে।

ডিম
আমাদের চারপাশে যেসব খাদ্য পাওয়া যায় তার মধ্যে ডিমই সবচেয়ে সহজলভ্য চর্বি-নিরোধক খাদ্য। ডিমের কুসুমতো চর্বি কাটাতে দারুণ সাহায্য করে।

একটি রুটির চাইতেও বেশি কার্বোহাইড্রেট থাকে যে ৪টি খাবারে

আপনি কি জানেন? কিছু কিছু খাবারে থাকে রুটির চাইতে বেশি কার্বোহাইড্রেট থাকে। এসকল খাবার খুব অল্প পরিমাণে খেলেও আপনি পাবেন একটি রুটির সমান কার্বোহাইড্রেট। আর এসব খাবার না বুঝেই অনেকগুলো খেয়ে ফেলার কারণে অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করে ফেলছেন অনেকেই। ফলে মেদ ভুঁড়ি, ডায়াবেটিসের মাত্রা বেড়ে যাওয়া সহ নানান সমস্যায় ভুগছেন অনেক মানুষ। একটি মাঝারী আকৃতির রুটিতে প্রায় ১৩.৬ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট থাকে। আসুন জেনে নেয়া যাক কোন ৪টি খাবারে একটি রুটির চাইতেও বেশি কার্বোহাইড্রেট থাকে।


কিসমিস
কিসমিস খেতে অনেকেই ভালোবাসেন। মিষ্টি স্বাদের এই খাবারটি নানান রকমের ডেসার্টে খাওয়া হয়। এমনিতেও চাবিয়ে খেতে ভালো লাগে খাবারটি। কিন্তু আপনি কি জানেন কিসমিসে আছে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট? মাত্র সোয়া কাপ কিসমিসে আছে ৩৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট যা একটি রুটির তুলনায় অনেক বেশি।

মিষ্টি আলু
মিষ্টি আলুতে আছে প্রচুর কার্বোহাইড্রেট। একটি মাঝারী আকৃতির মিষ্টি আলুতে আছে ২৪ ক্যালরি যা একটি রুটির চাইতেও অনেক বেশি। মিষ্টি আলুতে এছাড়াও আছে ১০৫ ক্যালরি, প্রচুর ভিটামিন ও পটাশিয়াম। মিষ্টি স্বাদের কারণে মিষ্টি আলু অনেক গুলো খাওয়া হয়ে যায়। কিন্তু যাদের ওজন সমস্যা আছে অথবা ডায়াবেটিস আছে তাদের এই খাবারটি পরিমিত খাওয়াই ভালো।

আপেল
অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি যে একটি বড় আকৃতির আপেলে ২৭ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট থাকে যা একটি রুটির চাইতে অনেক বেশি। এছাড়াও এতে আছে ১১৪ ক্যালরি ও ১.৫ গ্রাম ফ্যাট। আপেলের অনেক গুণ এবং এর স্বাদ অসাধারণ। কিন্তু যাদের অতিরিক্ত কার্বোহাইড্রেট গ্রহনে স্বাস্থ্য ঝুঁকি আছে তাদের আপেল খাওয়ার ব্যাপারে সাবধানতা অবলম্বন করাই ভালো।

সয়া মিল্ক
দুধের বিকল্প হিসেবে কেউ কেউ সয়া মিল্ক খেয়ে থাকেন। সয়া মিল্ক সয়াবিন থেকে সংগ্রহ করা হয় এবং এতে আছে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট। মাত্র এককাপ সয়ামিল্কে আছে ১৫ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ৮গ্রাম প্রোটিন, ৪গ্রাম ফ্যাট এবং ১৩১ ক্যালরি। হিসেব করলে দেখা যায় যে মাত্র এক কাপ সয়া মিল্কে একটি মাঝারী আকৃতির রুটির চাইতেও বেশি কার্বোহাইড্রেট আছে। তাই যাদের কার্বোহাইড্রেটের কারণে শারীরিক সমস্যা হয় তাদের সয়ামিল্ক এড়িয়ে চলাই ভালো।

কাঁঠালের উপকারিতা

কাঁঠালের উপকারিতা

কাঁঠাল পুষ্টিসমৃদ্ধ ফল। কাঁঠালে রয়েছে প্রচুর পরিমানে আমিষ, শর্করা, চর্বি, পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গনিজ, আয়রন, সোডিয়াম, জিংক, ভিটামিন ‘এ’, ভিটামিন ‘বি’, ভিটামিন ‘সি’, ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস, ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও থায়ামিন।

        ভিটামিন ‘এ’ রাতকানা দূর করে চোখ ভালো রাখতে সহায়তা করে।
        ভিটামিন ‘সি’ ত্বক ও চুল ভালো রাখার পাশাপাশি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়।
        কাঁঠালে বিদ্যমান পটাসিয়াম উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের সুস্থ রাখে।
        কাঁঠালে বিদ্যমান ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস- আলসার, ক্যান্সার, উচ্চ রক্তচাপ এবং বার্ধক্য প্রতিরোধ করে।
        টেনশন কমিয়ে হার্টকে ভালো রাখতে কাঁঠালের জুড়ি নেই।
        অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের ক্ষতিকর ফ্রির‌্যাডিকেলস দূর করে শরীরকে সুস্থ রাখে।
        কাঁঠালে চর্বি থাকলেও পরিমানে খুব কম থাকায় ওজন বৃদ্ধির আশংকা নেই বললেই চলে।
        কাঁঠালে বিদ্যমান ম্যাগনেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম দাঁতের মাড়ি ও হাড়কে শক্তিশালী করে তোলে।
        আয়রন রক্তস্বল্পতা দূর করে এবং ফাইবার কোষ্ঠ্যকাঠিন্য দূর করে।

যৌনপল্লী উচ্ছেদকারীদের শিরোচ্ছেদ করতে হবে: মহসিন আলী

ঢাকা, ২২ জুলাই- টাঙ্গাইলের প্রাচীন যৌনপল্লী যেসব মাওলানা উচ্ছেদ করেছেন তাদের সৌদি আরবের আইনে শিরোচ্ছেদ করা প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী।

মঙ্গলবার সকালে সচিবালয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে ভিক্ষুক পুনর্বাসন বিষয়ে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি টাঙ্গাইল শহরে প্রায় দুইশ বছরের পুরোনো একটি যৌনপল্লী উচ্ছেদ করেন স্থানীয় জনতা ও ধর্মপ্রাণ মুসলমানেরা।

নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, “নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনা নিয়ে মিডিয়া অনেক বাড়াবাড়ি করেছে। এজন্য মিডিয়া নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকার নতুন আইন করছে।”

উল্লেখ, প্রথমবার মন্ত্রী হওয়া মৌলভীবাজার থেকে নির্বাচিত এই সংসদ সদস্য শপথ গ্রহণের পর থেকে বিভিন্ন মন্তব্য ও কর্মকাণ্ডে সমালোচিত হযেছেন। ‘হু ইজ বিএনপি’, প্রকাশ্য মঞ্চে সিগারেটে সুখটান, ‘মুখ ঢাকলে চলবে না, খুলতে হবে’ এসব মন্তব্য ও কর্মকাণ্ডের কারণে তিনি গণমাধ্যমে বিভিন্ন সময় আলোচিত-সমালোচিত হয়েছেন।

মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী জানান, সরকার ভিক্ষুক পুনর্বাসন ও ভিক্ষুকমুক্ত দেশ গঠনে কাজ করছে। ঈদের পর ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে রাজধানীকে ভিক্ষুকমুক্ত করা হবে বলেও জানান তিনি।