ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

‘অনৈতিক ও অপরাধমূলক তৎপরতা’

Rate this item
(0 votes)

সাত ঘণ্টার জন্যে গাজায় একটি যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দিয়েছে ইসরায়েল। সোমবার সকাল থেকে শুরু হওয়া যুদ্ধবিরতিকে মানবিক বিরতি বলে তারা বর্ণনা করেছে।

জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুন গাজায় একটি স্কুলের কাছে মিসাইল হামলাকে ঘোরতর অনৈতিক ও অপরাধমূলক তৎপরতা হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

মানবিক প্রয়োজনে সাতঘণ্টার এই যুদ্ধবিরতি বলে ইসরায়েল ঘোষণা দিলেরও, একজন জ্যেষ্ঠ সামরিক কর্মকর্তা বলেছেন, গাজার দক্ষিণাঞ্চলীয় এলাকা রাফার ক্ষেত্রে এই যুদ্ধবিরতি প্রযোজ্য হবে না।

এছাড়া এই সাতঘণ্টার মধ্যে ইসরায়েল যদি কোনরকম হামলার মুখোমুখি হয়, তাহলে তারাও পাল্টা জবাব দেবে।

 

এদিকে গাজায় জাতিসংঘ পরিচালিত একটি স্কুলে মিসাইল হামলায় কমপক্ষে দশজন নিহত হয়েছেন।

 

এই ঘটনাকে ঘোরতর অনৈতিক ও অপরাধমুলক তৎপরতা বলে বর্ণনা করেছেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন।

 

ওই মিসাইল হামলায় কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু ঘটে।

 

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র বলেছেন যে তারা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছেন।

 

গাজায় জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক প্রধান সমন্বয়ক জেমস রাউলে বলছেন, গাজায় আমাদের চোখের সামনেই মানবিক আর স্বাস্থ্যগত বিপর্যয় দেখছি আমরা। এখানে এখন নিরাপদ জায়গা বলে কিছু নেই।

 

তিনি বলছেন, হাজার হাজার মানুষ তাদের বাড়িঘর থেকে পালিয়ে আত্মীয়দের বাসায় আশ্রয় নিয়েছেন। সেখান থেকে পালিয়ে শরনার্থী শিবিরে এসেছিলেন। কিন্তু তাদেরও এখন আর যাবার কোন জায়গা নেই।

 

এদিকে, ইসরায়েলের নিহত সেনা হাদার গোল্ডিনের আন্তেস্টিক্রিয়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

 

ইসরায়েলের পক্ষ থেকে এর আগে অভিযোগ করা হয় যে তাকে হামাস অপহরণ করেছিল. তবে এখন জানা গেছে ওই সেনা যুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

 

গাজায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শুধুমাত্র আজকের সহিংসতায় কমপক্ষে ত্রিশ জন নিহত হয়েছেন।

 

ফিলিস্তিনি প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছেন, দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফা শহরে ইসরায়লি বিমান হামলার কারণে রোববার সকালে ওই বিস্ফোরণ ঘটে।

 

জাতিসংঘ পরিচালিত স্কুলটিতে হাজার হাজার বেসামরিক ব্যক্তি আশ্রয় নিয়েছিলেন।