ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Friday, 28 February 2014 17:35

প্যারিসের দক্ষিণ আফ্রিকা গমন

Rate this item
(0 votes)

এমনিতেই তাঁর দুর্নামের শেষ নেই। সেই কলঙ্ক আরেকটু বাড়িয়ে দিল আফ্রিকান পুলিশ! তাদের অভিযোগ গুরুতর। মারিজুয়ানা বহন করেছেন তিনি। অথচ বিশ্বকাপ দেখতেই দক্ষিণ আফ্রিকা গিয়েছেন প্যারিস হিলটন। ফুটবল যে ভীষণ টানে এ মডেল অভিনেত্রীকে! দুনিয়া জানে, সে টানেই ভালোবেসেছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে। সেই সম্পর্কটা আজও শেষ হয়েও হয়নি শেষের মতো।
সেই ফুটবল দেখতে এসেই কি না যত বিপত্তি! এমনিতে পুলিশের সঙ্গে প্যারিসের সখ্য নতুন নয়। ২০০৭ সালে মদ পান করে গাড়ি চালানোর অভিযোগে বেশ কিছুদিন জেলে কাটিয়েছেন তিনি।

তারপর থেকে সমঝে চলেন পুলিশকে। ৩ জুলাই ছিল ব্রাজিল-নেদারল্যান্ডসের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচ। দর্শক গ্যালারিতে বান্ধবী জেনিফার বেভেরোকে নিয়ে প্যারিস। ম্যাচ শেষে ফিরতি পথেই বাধল গণ্ডগোল। পড়লেন পুলিশের হাতে। সেদিনই তাঁকে কোর্টে হাজির করা হলো। শুনানি শেষে বিচারে বেকসুর খালাস পেলেন তিনি। তবে মারিজুয়ানা বহনের দায়ে বেভেরোকে এক মাসের জেল অথবা এক হাজার র‌্যান্ড জরিমানা করলেন আদালত। দেরি না করে বান্ধবীকে বাঁচাতে জরিমানা গুনেছেন প্যারিস।
শোনা যায়, দক্ষিণ আফ্রিকায় প্যারিসের যাওয়ার পেছনে ছিল এক ঢিলে দুই পাখি শিকার_পুরনো প্রেম পুনরুদ্ধার ও বিশ্বকাপ দর্শন। অনেক আগেই ব্যর্থতার গ্লানি নিয়ে পর্তুগাল উড়ে গেছেন সাবেক প্রেমিক রোনালদো। প্যারিসের এ বেদনা টের পেয়েছিলেন ঘনিষ্ঠ বান্ধবী বেভেরো, আর তাই বুঝি সঙ্গে রেখেছিলেন মারিজুয়ানা!
এত ঘটনার পরও প্যারিসের মুখে দক্ষিণ আফ্রিকার সুনাম। যেন ভূতের মুখে রাম নাম! জানিয়েছেন, 'পুরো ঘটনাই স্রেফ ভুল বোঝাবুঝি। আমি গ্রেপ্তার হইনি বা এমন কিছুই করিনি, বরং পুলিশকে সহযোগিতা করেছি। দক্ষিণ আফ্রিকা একটি চমৎকার দেশ। এখানে সবাই বন্ধুভাবাপন্ন। আর আমি এ দেশটিকে খুব ভালোবাসি।' এসব শুনে অনেকেই বলছেন, প্যারিসের কত রূপ!