ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বইছে আলোচনা্র ঝড় হিলারির আগামী প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতা নিয়ে

Rate this item
(0 votes)

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়বেন কি না, তা নিয়ে আরও নানা আলোচনা বইছে যুক্তরাষ্ট্রে। এ ব্যআপারে

ডেমোক্র্যাট দলের নেতারাও কিছুই বলছেন না। তবে  হিলারি ক্লিনটন বলেছেন  ‘যখন সঠিক বলে মনে হবে’, তখনই তিনি এ নিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

হিলারি  বলেছেন, তাঁর নিজ দল ডেমোক্রেট দলের সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বীরা তাঁদের পছন্দ মতো এগোতে পারেন। বর্তমানে তিনি তাঁর নতুন বইয়ের প্রচারণায়

মনোনিবেশ করেছেন। একই সাথ  নিজের ডেমোক্র্যাট সহকর্মীদের আসন্ন মধ্যবর্তী নির্বাচনে সাহায্য করতে মনোযোগ দিয়েছেন। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠেয় মার্কিন

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, এ বছরের শেষের দিকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর্যায়ে থাকবেন। ক্লিনটন আরো বলেন, আমি এ বছর

দেশব্যাপী সফর, বইয়ের প্রচারণা ও আসন্ন মধ্যবর্তী নির্বাচনে দলকে সাহায্য করতে চাই। তারপর একটা লম্বা বিশ্রাম নিয়ে, সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে করণীয়

নির্ধারণ করতে আমার ইতিবাচক ও নেতিবাচক দিক নিয়ে ভাবব। ক্লিনটন আরো বলেন, অন্য সম্ভাব্য ডেমোক্রেট প্রতিদ্বন্দ্বীরা নিজেদের ভবিষ্যৎ

পরিকল্পনা নিয়ে স্বাধীনভাবে এগোতে পারেন। এ ছাড়া ২০১২ সালে লিবিয়ার বেনগাজিতে সংঘটিত হামলা নিয়ে কংগ্রেসের তদন্ত দলের কাছে স্বাক্ষ্য দেবেন কি

না, এমন প্রশ্নও করা হয় তাঁকে। উত্তরে তিনি বলেন, এটা নির্ভর করছে শুনানি যারা করছেন তাঁদের ওপর।

 

উল্লেখ্য, লিবিয়ার বেনগাজির সেই হামলায় লিবিয়ার তৎকালীন মার্কিন রাষ্ট্রদূতসহ চার মার্কিন নাগরিক নিহত হয়েছিলেন। তখনকার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

হিলারি ক্লিনটন একে সন্ত্রাসী হামলা বলে অভিহিত করেছিলেন। তবে বর্তমানে প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকানরা তার সে দাবিকে অস্বীকার করে, হামলা ঠেকাতে

তাঁর ব্যর্থতার সমালোচনা করছে। এ নিয়ে বেশ বিতর্কের মধ্যে মার্কিন কংগ্রেস এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।