ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

বিবারের শোকে কাতর সেলেনা!

Rate this item
(0 votes)

একাধিকবার সম্পর্ক ভাঙা-গড়ার খেলা শেষে চলতি বছরের জুন মাসে চূড়ান্ত বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন কানাডীয় পপগায়ক জাস্টিন বিবার এবং মার্কিন গায়িকা ও অভিনেত্রী সেলেনা গোমেজ। বিচ্ছেদের প্রায় ছয় মাস পার হলেও এখনো বিবারের সঙ্গে বিচ্ছেদের যন্ত্রণা ভুলতে পারছেন না সেলেনা। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে তাঁর পেশাজীবনেও। কাজে একদমই মনোযোগী হতে পারছেন না তিনি। এশিয়া ও অস্ট্রেলিয়ায় স্টারস ড্যান্স কনসার্ট ট্যুরে যাওয়ার কথা থাকলেও সম্প্রতি তা বাতিল করেছেন ২১ বছর বয়সী সেলেনা।এ প্রসঙ্গে সেলেনার কাছের একটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে শোবিজস্পাই জানিয়েছে, বিবারের সঙ্গে বিচ্ছেদের যন্ত্রণা এখনো ভোগাচ্ছে সেলেনাকে। এই মুহূর্তে তাঁর মানিসক অবস্থা বেশ খারাপই বলা যায়। তিনি কাজে একদমই

মনোযোগ দিতে পারছেন না। মনকে শান্ত করার জন্য কাছের বন্ধুবান্ধব এবং পরিবারের সদস্যদের ওপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন তিনি।
সূত্রটি আরও জানিয়েছে, সেলেনার পরিবারের সদস্যরা তাঁকে মানসিক চিকিত্সা নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। চিকিত্সা-প্রক্রিয়া শুরু না হওয়া পর্যন্ত পরিবারের সদস্যরা তাঁকে আগলে রাখার জন্য সব সময় তাঁর পাশাপাশি থাকছেন।
নতুন বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে অস্ট্রেলিয়া ও এশিয়া ট্যুরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন সেলেনা। ১৩টি কনসার্টে অংশ নেওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সম্প্রতি তা বাতিল করেছেন সেলেনা। এ জন্য ভক্তদের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে এক বিবৃতিতে সেলেনা বলেন, ‘আমার কাছে ভক্তরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আমি কখনোই তাঁদের আশাহত করতে চাই না। বছরের পর বছর ধরে আমি আমার কাজকেই অগ্রাধিকার দিয়েছি। কিন্তু ইদানীং আমি স্পষ্ট বুঝতে পারছি, এখন নিজের পেছনে সময় দেওয়াটা খুব জরুরি হয়ে পড়েছে আমার জন্য। নিজের পরিশুদ্ধির জন্যই এটা করতে হবে আমাকে। আমি ভক্তদের কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমাপ্রার্থনা করছি। আমার বিশ্বাস, আপনাদের প্রত্যেকের মূল্য আমার কাছে কতটা বেশি তা আপনারা ভালো করেই জানেন।’
সেলেনার সঙ্গে দুই বছর ধরে প্রেম করলেও শেষতক তাঁকে জীবনসঙ্গী হিসেবে পাননি বিবার। এখন পর্যন্ত বেশ কয়েকবার সম্পর্কের ভাঙা-গড়ার খেলায় মেতে খবরের শিরোনাম হয়েছেন তাঁরা। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তাঁদের প্রেম ভেঙে গেলেও তিন মাসের মাথায় গত এপ্রিলে তাঁদের পুনর্মিলন ঘটে। কিন্তু মাত্র দুই মাসের মাথায় আবার তাঁদের বিচ্ছেদ হয়ে যায়।