ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Wednesday, 05 March 2014 14:28

সবাক যুগে নির্বাকের জয়জয়কার

Rate this item
(0 votes)

চুরাশিতম আসরে অস্কার যেন ফিরে গেল তার প্রথম আসরে, ফিরিয়ে আনল নির্বাক চলচ্চিত্র যুগের সৌন্দর্যের ছটা।

আসরের সবচেয়ে আলোচিত পুরস্কারগুলো জিতে নেওয়া সবাক যুগের নির্বাক চলচ্চিত্র ‘দি আর্টিস্ট’র জয়জয়কারে এমনটিই মনে হওয়া স্বাভাবিক।

সেরা চলচ্চিত্র, সেরা নির্মাতা, সেরা অভিনেতাসহ মোট পাঁচটি

পুরস্কার জিতে নিয়েছে চলচ্চিত্রটি। এটি মনোনয়ন পায় মোট ১০টি ক্যাটাগরিতে।

এবারের আসরে দ্বিতীয়বারের মতো সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নেন হলিউড তারকা মেরিল স্ট্রিপ।

প্রথমবারের মতো সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কার জিতে নিয়েছে ইরানী চলচ্চিত্র ‘এ সেপারেশন’। সারা বিশ্বে নন্দিত হলেও অস্কারে প্রথমবারের মতো সেরার স্বীকৃতি পেল ইরানি চলচ্চিত্র।

রোববার রাতে লস এঞ্জেলেসের কোডাক থিয়েটারে বসে অস্কারের পুরস্কার ঘোষণার আসর। জমকালো এই অনুষ্ঠানে অংশ নেন চলচ্চিত্র অঙ্গনের নামি সব তারকা।

সেরা চলচ্চিত্র

সেরা চলচ্চিত্র হিসেবে পুরস্কার জেতার পাশাপাশি সেরা পরিচালকের পুরস্কারটিও পেয়েছেন ‘দি আর্টিস্ট’র পরিচালক মিশেল হাজানাভিসাস।

‘দি আর্টিস্টে’র জন্য সেরা পরিচালক এর আগে গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা, ডিরেক্টরস গিল্ডসহ আরো কয়েকটি পুরস্কার জিতেছেন।

ফরাসি পরিচালক হাজানাভিসাস ১৯৮৮ সালে ফ্রান্সের টেলিভিশন চ্যানেলে কাজ শুরু করেন। ৪৪ বছর বয়সী এ পরিচালক বেশ কয়েকটি টেলিভিশন সিরিজ, টেলিভিশন কমার্শিয়ালও পরিচালনা করেছেন।

সেরা অভিনেতা

‘দি আর্টিস্ট’ চলচ্চিত্রটির কেন্দ্রীয় চরিত্র জর্জ ভ্যালেনটাইনের অভিনয় করে অস্কারের ৮৪তম আসরে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার খেতাব জিতে নিয়েছেন ফরাসি অভিনেতা জ্যঁ দুজারদাঁ।

এ চরিত্রে অভিনয়ের জন্য গোল্ডেন গ্লোব, বাফটা, স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড, কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালসহ বিভিন্ন আসরে আরো বেশকিছু পুরস্কার জিতেছেন তিনি।

৩৯ বছর বয়সী ফরাসি এ অভিনেতার অভিনয় জীবন শুরু হয় প্যারিসের বিভিন্ন রেস্তোরাঁ ও বারের ছোট্ট মঞ্চে একক অভিনয় দিয়ে। ১৯৯৬ সালে ফ্রান্সের একটি টেলিভিশন সিরিজে অভিনয়ের মধ্যে প্রথমবারের মতো আলোচনায় আসেন তিনি।

সেরা অভিনেত্রী

‘লৌহমানবী’ খ্যাত যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মার্গারেট থ্যাচারের ভূমিকায় অভিনয় করে এবারের আসরে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতে নেওয়া মেরিল স্ট্রিপ স্বনামখ্যাত অভিনেত্রী। এর আগেও ১৬ বার এ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছিলেন তিনি।

থ্যাচারের জীবনীভিত্তিক ‘দি আয়রন লেডি’ চলচ্চিত্রটিতে থ্যাচারের রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার পরে মানসিক অসুস্থতা ও একাকী জীবনের গল্প তুলে ধরা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সিতে জন্ম নেওয়া স্ট্রিপ তার অভিনয় জীবন শুরু করেন ১৯৭০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে একটি মঞ্চনাটকে অভিনয়ের মধ্যে দিয়ে। এরপরে তিনি টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন।

নিজের অভিনয় জীবনে মেরিল স্ট্রিপ ১৭ বার অস্কারের জন্য, ২৬ বার গোল্ডেন গ্লোবের জন্য মনোনীত হন।

১৯৭৯ সালে ‘ক্র্যামার ভার্সেস ক্র্যামার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ সহঅভিনেত্রীর পুরস্কার পাওয়ার মাধ্যমে নিজের অভিনয় জীবনের প্রথম অস্কার জিতে নেন মেরিল স্ট্রিপ। পরে ১৯৮২ সালে ‘সোফি’স চয়েস’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করে প্রথমবারের মতো শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার জেতেন তিনি।

এছাড়া আটবার গোল্ডেন গ্লোব, দুবার এ্যমি, দুবার স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড, দুবার বাফটা, একবার কান ফিল্ম ফেসটিভ্যালসহ আরো প্রচুর পুরস্কার জিতেছেন।

গায়িকা হিসেবেও কম যান না স্ট্রিপ। সঙ্গীতের জন্য বিখ্যাত গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন পাঁচবার। এছাড়া থিয়েটারে কৃতিত্বের জন্য একবার টনি অ্যাওয়ার্ডসের মনোনয়নও পান তিনি।

২০০৪ সালে অ্যামেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউটের আজীবন সম্মাননা পুরস্কার পান মেরিল স্ট্রিপ।

সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র

সেরা বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতে নেয় ইরানি পরিচালক আসগার ফারহাদির ‘এ সেপারেশন’। প্রথমবারের মতো কোনো ইরানি চলচ্চিত্র এ পুরস্কার জিতল।

রক্ষণশীল ইরানের অবরুদ্ধসমাজ থেকে নিজের মেয়েকে সরিয়ে নিতে চাওয়া এক মায়ের বিবাহ-বিচ্ছেদের ঘটনাকে ঘিরে গড়ে উঠেছে ‘এ সেপারেশন’র কাহিনী।

অন্যান্য পুরস্কার

সবচেয়ে বেশি বয়সে অস্কার জেতার রেকর্ড করেছেন সেরা সহ অভিনেতার পুরস্কার জেতা ক্রিস্টোফার প্লামার। ‘বিগিনার্স’ চলচ্চিত্রটিতে স্ত্রীর মৃত্যুর পরে সমকামী হয়ে ওঠা এক চরিত্রে অভিনয় করে পুরস্কারটি জিতে নেন ৮২ বছর বয়সী এ অভিনেতা।

‘দি হেল্প’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য অভিনেত্রী অক্টাভিয়া স্পেনসার জিতেছেন সেরা সহঅভিনেত্রীর পুরস্কার।

‘দি ডিসেনডান্টস’ চলচ্চিত্রটির চিত্রনাট্যের জন্য সেরা চিত্রনাট্যের পুরস্কারটি পেয়েছেন আলেকজান্ডার পেইন। সেরা মৌলিক চিত্রনাট্যের পুরস্কারটি পান উডি অ্যালেন তার ‘মিডনাইট ইন প্যারিস’র জন্য।

সেরা চিত্রগ্রহণের জন্য পুরস্কার পেয়েছে মার্টিন স্করসেসের ‘হুগো’র চিত্রগ্রাহক রবার্ট রিচার্ডসন। সেরা শিল্প নির্দেশনার জন্যও পুরস্কার জিতে নেন এর শিল্প নির্দেশক ফ্রানচেস্কা ডি শাভো।

এছাড়া সেরা শব্দ সংযোজন, শব্দ মিশ্রণ ও স্পেশাল ইফেক্টের জন্য পুরস্কার জিতে নেয় ‘হুগো’।

সেরা অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেয়েছে গোর ভারবিনস্কির ‘র‌্যাঙ্গো’। এতে একটি গিরগিটির চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন অভিনেতা জনি ডেপ। স্বল্পদৈর্ঘ্য অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেয়েছে ‘দি ফ্যানটাসটিক ফ্লাইং বুকস অব মিস্টার মরিস লেসমোর’।

সেরা সম্পাদনার জন্য পুরস্কার জিতেছে ‘দি গার্ল উইথ দি ড্রাগন ট্যাটু’র সম্পাদক জুটি কার্ক ব্যাক্সটার ও অ্যাঙ্গাস ওয়াল।

‘দি আর্টিস্ট’এর জন্য সেরা পোশাক পরিকল্পনার পুরস্কার জিতেন মার্ক ব্রিজেস। একই চলচ্চিত্রের জন্য সেরা আবহ সঙ্গীতের পুরস্কার জিতেন ফরাসি সুরকার লুদোভিক বঁসে।

সেরা রূপসজ্জার জন্য পুরস্কার জিতেছেন ‘দি আয়রন লেডি’র রূপসজ্জা শিল্পী জে রয় হেল্যান্ড ও মার্ক কোলিয়ের।

অ্যানিমেটেড চলচ্চিত্র ‘দি মাপেটস’এর গান ‘ম্যান অর মাপেট’এর জন্য সেরা সঙ্গীতের পুরস্কার জিতে নেন ব্রেট ম্যাককেনজি।

সেরা প্রামাণ্যচিত্রের পুরস্কার পায় ‘আনডিফিটেড’। যুক্তরাষ্ট্রের একটি শহরের ছোট একটি রাগবি দলের নতুন প্রশিক্ষক এসে দলকে বিজয়ী করে তোলার কাহিনী নিয়ে তৈরি হয়েছে এ প্রামাণ্যচিত্রটি।

উত্তর আয়ারল্যান্ডের চলচ্চিত্র ‘দি শোর’ সেরা লাইভ অ্যাকশন চলচ্চিত্রের পুরস্কার জিতে নেয়। সেরা স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রামাণ্যচিত্রের পুরস্কার জিতে নেয় ‘সেভিং ফেস’। এক এসিডদগ্ধ নারীকে এক ব্রিটিশ-পাকিস্তানী চিকিৎসকের সাহায্য করার কাহিনী নিয়ে তৈরি হয়েছে এটি।

Last modified on Sunday, 09 March 2014 16:10