ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

গোল হলে মজা করি: শিমু

Rate this item
(0 votes)

সুমাইয়া শিমু। অভিনয়শিল্পী। এনটিভিতে আজ রাতে প্রচারিত হবে ধারাবাহিক নাটক যোগাযোগ গোলযোগ। এতে অভিনয় করছেন তিনি।

সুমাইয়া শিমুর শুটিংয়ের কী খবর?

এই কদিন টানা করেছি, সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। তিন দিন কোনো কাজ রাখিনি। একটু বিশ্রাম নিচ্ছি। কাল থেকে আবার টানা শিডিউল দিয়ে রেখেছি। বেশির ভাগই ঈদের কাজ।

যে ধারাবাহিকগুলো প্রচারিত হচ্ছে, সেগুলোরও কাজ আছে।

ঈদের কাজগুলো কেমন মনে হচ্ছে?

গতানুগতিক বলব না, কিছুটা ভিন্নতা তো আছেই। ঈদের সময় সিরিয়াস কাজ খুব একটা করা হয় না। যেগুলো করছি, সেগুলো খুব রোমান্টিক কিংবা মজার গল্প নিয়ে। একটু হালকা মেজাজ বলতে পারেন। দর্শককে পুরো মাত্রার বিনোদন দেওয়ার চেষ্টা।

আপনি নিজে কী ধরনের গল্প পছন্দ করেন?

যে গল্পে কিছু বার্তা থাকে। সমাজ ও মানুষের প্রতি দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আমি এই কাজটি করছি। এর ফলে মানুষ একদিকে যেমন বিনোদন পাচ্ছেন, পাশাপাশি তাঁর কাছে কিছু বার্তাও পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

বাসায় আছেন। নিশ্চয়ই বিশ্বকাপ ফুটবলের খেলা দেখছেন।

আমি ফুটবল খেলা তেমন বুঝি না। বাসার সবাই দেখে। তাদের সঙ্গে বসি। গোল হলে সবার সঙ্গে আমি আনন্দ করি।

এজাজ মুন্নার ‘যোগাযোগ গোলযোগ’ ধারাবাহিকটি তো অনেক দিন ধরে প্রচারিত হচ্ছে।

হ্যাঁ, নাটকটি অনেকেই দেখছেন। আমার বাসার পাশে গুলশান লেক। প্রায় প্রতিদিনই সকালে কিংবা রাতে ওখানে হাঁটতে যাই। অনেকের সঙ্গে দেখা হয়। হাঁটার মধ্যে তাঁদের সঙ্গে কথা বলি। কেউ কেউ এই ধারাবাহিকে আমার কাজ নিয়ে বলেন। বুঝতে পারি, অনেকেই নাটকটি দেখছেন।

শুটিং না থাকলে বাসায় কী করেন?

বেশির ভাগ সময় বিশ্রাম নিই। আগে খুব বই পড়তাম। ব্যস্ততার কারণে তা পাল্টে গেছে। এখন আবার বই পড়ছি। ছবি দেখি। দৈনিক পত্রিকা কিংবা ম্যাগাজিন পড়ি। বাসার টুকটাক কাজ করি। এভাবেই দিন কেটে যায়।