ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

ঢাকার পুঁজিবাজারের সূচক আবারও ৩ হাজার ছাড়িয়েছে

Rate this item
(0 votes)

ঢাকা, মার্চ ০৯ - শেয়ার কেনার ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ অব্যাহত থাকায় চাঙ্গাভাবেই সপ্তাহ শুরু হয়েছে ঢাকার পুঁজিবাজারে।

বাজার বিশ্লেষকদের মতে, বেশ কয়েকটি কোম্পানির মুনাফা ঘোষণা এদিন বাজারে লেনদেন বাড়াতে ভূমিকা রেখেছে।

দিনের শুরুতেই ঢাকার শেয়ার বাজারের ডিজিইএন বা সাধারণ সূচক বাড়তে শুরু করে। এক পর্যায়ে তিন হজার পয়েন্টের সীমাও অতিক্রম করে তা। সূচকের ঘরে

৩০২৩ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট নিয়ে দিন শেষ করে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ।

২০০৭ সালের ১৯ নভেম্বর এই সূচক রেকর্ড ৩০৯৪ পয়েন্ট হয়েছিল।

বাজার পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করতে গিয়ে প্রাইম সিকিউরিটিজ এর এমএ কাশেম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, "বছরের এই সময়টাতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান তাদের শেয়ারের বিপরীতে মুনাফা ঘোষণা করে। এ কারণে এ সময় বাজার এমনিতেই কিছুটা চাঙ্গা থাকে।"

তবে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান নির্বাহী সালাহউদ্দিন আহমেদ মনে করেন, বাজারের ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসাও এই ঊর্ধ্বগতির অন্যতম কারণ।

তিনি বলেন, "কয়েকটি নতুন প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। বাজারের ওপর তাদর আস্থা ফিরে আসছে বলেই মনে হচ্ছে।"

লতিফ সিকিউরিটিজ এর একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, "বাজার চাঙ্গা হয়ে ওঠার পেছনে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলোও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে তারা নমনীয় থাকায় পছন্দমাফিক শেয়ার কেনার ব্যাপারে বিনিয়োগকারীদের তহবিল পেতে সমস্যা হচ্ছে না।"

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে দিনের শুরুতেই সাধারণ সূচক উঠতে শুরু করে। মাঝবেলা পর্যন্ত ওঠা-নামা চললেও চাঙ্গাভাবেই দিন শেষ হয়।

দিনশেষে ডিজিইএন বা সাধারণ শেয়ার সূচক ৩২ দশমিক ৫০ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ০৮ শতাংশ বেড়ে ৩০২৩ দশমিক ৮৮ পয়েন্ট হয়। ডিএসআই বা সার্বিক শেয়ার সূচক ২৫ দশমিক ৩০ পয়েন্ট বা ১ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ২৫৫৩ দশমিক ৩১ পয়েন্ট।

এছাড়া ডিএসই-২০ ব্লুচিপ শেয়ার সূচক ৪০ দশমিক ০৩ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৭১ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ২৩৭৯ দশমিক ১৯ পয়েন্ট।

দিনশেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৩২৫ কোটি টাকার মোট ২ কোটি ১৫ লাখ ১১ হাজার ৬৪০টি শেয়ার লেনদেন হয়। এ বাজারে ১৩৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম বেড়েছে, ১০৩টির কমেছে এবং ২টির দাম অপরিবর্তিত ছিল।

রোববার মুনাফা উঠিয়ে নেওয়ার কারণে বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ারের দাম পড়ে গেলেও বেড়েছে মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম। ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলো মিশ্রভাবে দিন পার করেছে।

এদিন লেনদেনের তালিকায় শীর্ষে ছিল এবি ব্যাংক। এ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম ৩ দশমিক ৫৩ শতাংশ কমে ৩৩১৩ টাকা ৫০ পয়সা হয়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা স্কয়ার ফার্মার শেয়ার ৪ দশমিক ৯৪ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৩৭০১ টাকা ৫০ পয়সা।

উত্তরা ব্যাংকের শেয়ারের দাম দুই দশমিক ৬৬ শতাংশ কমে ৪৮৬৩ টাকায় বিক্রি হয়েছে এদিন। এছাড়া গ্রামীণ মিউচ্যুয়াল ফান্ড ওয়ানের শেয়ারের দাম ৩ দশমিক ৬৮ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ১৩৪ টাকা ৯০ পয়সা।

বিনিয়োগকারীদের চাহিদার কারণে লাফার্জ সুরমার শেয়ার ৬ দশমিক ৪৪ পয়েন্ট বেড়ে ৪৯৯ টাকা ৫০ পয়সা হয়েছে।

এ ছাড়া দিনশেষে ২ দশমিক ০৬ শতাংশ কমে ২৮৫২ টাকা ৭৫ পয়সা হয় আইএফআইসি ব্যাংকের শেয়ার। এইমস ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার ১ দশমিক ৭৩ শতাংশ বেড়ে ৯ টাকা ৯৫ পয়সা হয়েছে। বিনিয়োগকারীরা মুনাফা তুলে নেওয়ায় এদিন ডাচ বাংলা ব্যাংকের শেয়ারের দাম পড়ে গেলেও বেড়েছে ব্র্যাক ও এনসিসি ব্যাংকের শেয়ারের দাম।

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) এদিন সূচক ও লেনদেন দুটোই বেড়েছে।

সিএসইতে ৫৩ কোটি ৩১ লাখ ৮০ হাজার টাকার মোট ৪৩ লাখ ৬২ হাজার ৮১৬টি শেয়ার লেনদেন হয়।

রোববার সিএএসপিআই বা সার্বিক শেয়ার সূচক ১ দশমিক ৫০ শতাংশ বেড়ে ৭৭৬৫ দশমিক ২৮ পয়েন্ট হয়েছে। সিএসসিক্স বা নির্দিষ্ট শ্রেণীর শেয়ার সূচক ১ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৪৯৭৬ দশমিক ৫২ পয়েন্ট।

এছাড়া সিএসই-৩০ ব্লুচিপ শেয়ার সূচক ১ দশমিক ০১ শতাংশ বা ৬৮ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট বেড়ে ৬৮৯৩ দশমিক ১৪ পয়েন্ট হয়েছে।

Last modified on Saturday, 08 March 2014 10:03