ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

বাণিজ্যে ১৫ বছরের করণীয় নির্ধারণে আন্তর্জাতিক সম্মেলন শুরু

Rate this item
(0 votes)

ঢাকা, অক্টোবর ৩১ - বাণিজ্য ক্ষেত্রে আগামী ১৫ বছরের করণীয় নির্ধারণে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) উদ্যোগে শুক্রবার ঢাকায় শুরু হয়েছে দুই দিনের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্মেলন। 'আগামী ১৫ বছর-প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা' শীর্ষক এ সম্মেলনে প্রায় ২০টি দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন।

প্রধান উপদেষ্টা ফখরুদ্দীন আহমেদ সকালে রাজধানীর বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সম্মেলন কেন্দ্রে এ সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এ সম্মেলনে জাতিসংঘ বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থার (আঙ্কটাড) প্রতিনিধি, চীন ও ভারতের দুজন মন্ত্রী ছাড়াও বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ প্রায় সাড়ে ছয়শ প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন।

এ সম্মেলন থেকে বাংলাদেশ অনেকখানি লাভবান হবে জানিয়ে ডিসিসিআই সভাপতি হোসেন খালেদ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, "বাংলাদেশে অনেক ধরনের সম্মেলন হয়েছে। কিন্তু এ ধরনের সম্মেলনের আয়োজন এবারই প্রথম। এ সম্মেলনে থেকে আগামী ১৫ বছরের করণীয় সম্পর্কে সুপারিশ তৈরি করা হবে। দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে একটি দিক নির্দেশনাও থাকবে।"

হোসেন খালেদ বলেন, "ব্যবসার সুযোগ ব্যবসায়ীদেরই সৃষ্টি করতে হবে। বিদেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। ডিসিসিআই আয়োজিত এ সম্মেলন দেশ বিদেশের ব্যবসায়ীদের একটি মেলবন্ধন ঘটিয়েছে।"

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান উপদেষ্টা ভাষণের পর সম্মেলনের মূল প্রবন্ধ পড়েন আঙ্কটাড মহাসচিব সুপাচাই পানিচপাকদি। এর ওপর আলোচনা করেন অর্থ উপদেষ্টা এবি মির্জ্জা আজিজুল ইসলাম, শ্রীলঙ্কার রপ্তানি উন্নয়ন ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মন্ত্রী জি এল তেইরিস, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার (ডব্লিউটিও) উপ মহাপরিচালক হর্ষবর্ধন সিং। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন জাতিসংঘ বাণিজ্য উন্নয়ন বোর্ডের সভাপতি দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য।

দুপুরের পর 'বিজনেস স্ট্র্যাটেজিস ইন এ ওয়ার্ল্ড অব চেইঞ্জ' ও 'ইমপ্যাক্ট অন ডব্লিউটিও অন এসএমই'জ' শীর্ষক দুটি গোলটেবিল বৈঠক হয়।

শনিবার সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে 'গ্লোবাল ইকনোমিক শিফট টু এশিয়া' ও 'ডাজ বাংলাদেশ হ্যাভ এ নিশ ইন এশিয়া' শীর্ষক দুইটি গোলটেবিল বৈঠক হবে। এতে ভারতের বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী জয়রাম রমেশ, শ্রীলঙ্কার রপ্তানি উন্নয়ন ও আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মন্ত্রী জি এল পেইরিস ও বাংলাদেশের বাণিজ্য উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমানসহ বিভিন্ন দেশীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন।

শনিবার বিকেলে 'নেক্সট ফিফটিন ইয়ার-দ্য ওয়ে ফরওয়ার্ড' শীর্ষক সমাপনি অনুষ্ঠান হবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের পরবর্তী সরকারের জন্য করনীয় বিষয়ে পরামর্শ থাকবে বলে জানান হোসেন খালিদ।

সন্ধ্যায় 'ঢাকার বাণিজ্য ইতিহাস' শীর্ষক একটি বই এর মোড়ক উন্মোচন করা হবে।