ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

ক্রেতাদের সুপারিশে নয়টি পোশাক কারখানা ভবন বন্ধ

Rate this item
(0 votes)

ঝুঁকিপূর্ণ চিহ্নিত হওয়ায় বন্ধ করা হয়েছে নয়টি পোশাক কারখানা ভবন। এগুলোতে নকশা ও অগ্নি নিরাপত্তা বিষয়ে ত্রুটি পেয়েছে ইউরোপ ও আমেরিকার ক্রেতাদের জোট অ্যাকর্ড ও অ্যালায়েন্সের পরিদর্শকদল। এতে সাড়ে ১৭ হাজার শ্রমিক বেকার হয়েছে বলে জানিয়েছে বিজিএমইএ।

তাজরিন ও রানা প্লাজা বিপর্য়যের পর পোশাক কারখানায় শ্রমিকের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ জানায় আন্তর্জাতিক মহল। ভবনের নকশা ও অগ্নি নিরাপত্তা তদারকিতে মাঠে নামে ইউরোপ ও আমেরিকার ক্রেতা প্রতিষ্ঠানগুলো। ইউরোপের ১৬০টি ক্রেতা প্রতিষ্ঠানের জোট অ্যাকর্ড ১৭শ কারখানা পরিদর্শনের ঘোষণা দেয়।

আর উত্তর আমেরিকার ২৬টি ক্রেতা প্রতিষ্ঠানের জোট অ্যালায়েন্স তালিকা দেয় ৬২৬টি কারখানার। ইতোমধ্যে অ্যাকর্ড ও অ্যালায়েন্স হাজারের বেশি কারখানা পরিদর্শন শেষ করেছে। তবে বড় ধরনের ত্রুটি পাওয়া গেছে নয়টি কারখানা ভবনে।

ঢাকা ও চট্টগ্রামে এসব কারখানা ভবন বন্ধের কারণে অনেক শ্রমিক বেকার হয়েছে বলে জানিয়েছে মালিকদের সংগঠন।

কারখানা বন্ধের সময়টাতে অ্যালায়েন্স শ্রমিকদের দু’মাসের বেতন দিতে সহায়তা করলেও অ্যাকর্ড তা করছে না। অ্যাকর্ডকেও একই নীতি অনুসরনের আহবান জানিয়েছে বিজিএমইএ।