ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Thursday, 24 April 2014 00:05

পোশাক শিল্পে উৎসে কর কমে ০.৩০ শতাংশ Featured

Rate this item
(0 votes)

তৈরি পোশাক শিল্পে পণ্য আমদানি ও রপ্তানিতে উৎসে কর শূন্য দশমিক ৮০ শতাংশ থেকে কমিয়ে শূন্য দশমিক ৩০ শতাংশ করেছে সরকার।

ফলে পোশাক রপ্তানিকারকরা এখন শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ উৎসে কর মওকুফ পাচ্ছেন। যা চলতি মাসের ২২ তারিখ থেকে প্রযোজ্য হয়েছে ধরা হয়েছে। আগামী বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত পোশাকশিল্প মালিকরা এ সুবিধা পাবেন।

বুধবার এ সংক্রান্ত একটি গেজেট অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বিজিএমই’কে পাঠানো হয়েছে।

বিজিএমইএ সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বিজিএমইএ সহ-সভাপতি মো. শহীদুল্লাহ আজীম নবদেশকে জানান, অর্থ মন্ত্রণারয় থেকে আজ (বুধবার) বিকেলে উৎসে কর কমানোর বিষয়ে একটি গেজেট পাঠানো হয়েছে। এখন আমরা সেটি বিভিন্ন গার্মেন্ট মালিক ও সংশ্লিষ্ট শিল্প প্রতিষ্ঠানে পাঠাচ্ছি।

তবে বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষ এটা অনুৃমোদন করলেই উৎসে করের এই নতুন হার সকল পোশাক শিল্প প্রতিষ্ঠানে বাস্তবায়িত হবে বলে জানান তিনি।

উৎসে কর এ হার করায় পোশাক মালিকদের তেমন লাভ হবে না মন্তব্য করে পোশাক শিল্প মালিক সংগঠনের এই নেতা আরো জানান, “এটা তো আমাদের টাকাই আমাদের দেয়া হচ্ছে। কেননা, আমাদের এ শিল্প উৎপাদনে ৭৫ ভাগ পণ্য বাইরে থেকে আমদানি করতে হয়। ফলে বাকি থাকে মাত্র ২৫ ভাগ। এই ২৫ ভাগের জন্য তেমন কোনো লাভ হবে না আমাদের।”

এদিকে উৎসে কর কমানোর ফলে মোট ২ হাজার ৫০০ কোটি টাকার রাজস্ব আয় থেকে সরকার বঞ্চিত হবে জানিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এনবিআর।

এদিকে বিজিএমইএ’র আরেক ঊর্ধ্বতন নেতা বলেন, পোশাক কারখানায় নতুন বেতন কাঠামো বাস্তবায়নের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে পোশাকশিল্প মালিকদের এই রাজস্ব প্রণোদনা দেয়া হচ্ছে। তবে যে হারে শ্রমিকদের বেতন বেড়েছে, সে ক্ষতি পুষিয়ে নিতে এই প্রণোদনা ছয় ভাগের মাত্র এক ভাগ।

ইতোমধ্যে গত বছরের রাজনৈতিক সহিংসতা এবং বেতন বৃদ্ধিসহ অন্যান্য করাণে ক্ষতির মুখে থাকা পোশাক খাতে প্রণোদনার অংশ হিসেবে টিটির মাধ্যমে রপ্তানিতে ৫ শতাংশ নগদ সহায়তা, রপ্তানি উন্নয়ন তহবিলের (ইডিএফ) সুদ হার কমানো, ডাউন পেমেন্ট ছাড়াই অথবা ব্যাংক-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে খেলাপি ঋণ পুনঃতফসিলের সুযোগ, শিল্প পণ্য আমদানিতে আগাম মূল্য পরিশোধের ব্যবস্থা ইতোমধ্যেই বাস্তবায়ন করেছে সরকার।