ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Monday, 13 October 2014 10:28

শিশু মাইমুনা পিতৃস্নেহের বলি ! Featured

পাঁচ বছর আগে শিশু মাইমুনা আক্তারের মা মারা যান। এরপর থেকেই মেয়েটি সব সময় মনমরা হয়ে থাকত। মা-হারা মেয়েকে নিয়ে অনেক দুঃশ্চিন্তা ছিল বাবা আব্দুর রাজ্জাকের। চেষ্টা করতেন মেয়ের সব বায়না পূরণের। তার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে ব্যাংকে চার লাখ টাকা গচ্ছিতও রাখেন।

এক সময় দ্বিতীয় বিয়ে করতে বাধ্য হন আব্দুর রাজ্জাক। জীবনের প্রয়োজনে বিয়ে করলেও মেয়েকে নিয়ে তার উৎকণ্ঠার অন্ত ছিল না। দ্বিতীয় স্ত্রী শরমিনকে শর্ত দিয়েছিলেন- নিজের গর্ভজাত সন্তানের আদরেই যেন লালন-পালন করেন মাইমুনাকে।

বিয়ের পর মাইমুনার প্রতি ভালোবাসা জন্মায়নি সৎ মার। দুই সন্তান জন্ম নিলে মাইমুনার প্রতি অবহেলা ও ঈর্ষা বেড়ে যায় শারমিনের। রাজ্জাকের চোখের আড়াল হলেই তুচ্ছ কারণে তাকে মারধর করতেন। রাজ্জাক এসব বিষয় টের পেয়ে সব সময় মেয়েকে চোখে চোখে রাখতেন। আর বাবার এ বেশি ভালোবাসাই কাল হলো মাইমুনার জীবনে!

 

নিজের গর্ভজাত সন্তানদের চেয়ে মাইমুনাকে বেশি পিতৃস্নেহ পাওয়ার কারণেই প্রতিহিংসায় জ্বলে পাষণ্ড ডাইনিতে পরিণত হন সৎমা শারমিন। মাইমুনাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন তিনি। বাবা আব্দুর রাজ্জাক গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার পর আসে সুবর্ণ সুযোগ! রাতে একা ভয় পাচ্ছেন বলে মাইমুনাকে নিজের বিছানায় ঘুমাতে নিয়ে যান শারমিন। এরপর গভীর রাতে থামিয়ে দেন শিশুটির শেষ নিঃশ্বাস।

 

রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর ধলপুর এলাকায় ছয় বছরের শিশু মাইমুনা আক্তার হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত সৎমা সুমাইয়া ইসলাম শারমিনকে দুই দিনের রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ এবং আলামত যাচাই করে তদন্ত সংশ্লিষ্টরা এমন তথ্যই পেয়েছেন।

 

তবে তদন্তকারীরা জানিয়েছেন,রোববার রাত পর্যন্ত পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে শারমিন হত্যার বর্ণনা দেননি। শেষ মুহূর্তের জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার মোটিভ ও বর্ণনার মিল পাওয়া যাবে বলে পুলিশ কর্মকর্তাদের ধারণা। এক্ষেত্রে সোমবার শারমনিকে আদালতে হাজির করার পর স্বীকারক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের সম্ভাবনা আছে।

 

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনি শংকর কর রোববার রাতে বাংলামেইলকে বলেন, ‘আমরা শারমিনের কাছ থেকে হত্যার বর্ণনা বা দায় স্বীকারের বর্ণনা এখনো পাইনি। তবে তার বক্তব্য ও আলামত দেখে মনে হচ্ছে- বাবার অতিরিক্ত ভালোবাসাই কাল হয়েছে মাইমুনার। নিজের সন্তানদের চেয়ে তাকে রাজ্জাক সাহেব বেশি আদর করতেন, এটা সহ্য হত না শরমিনের। আমরা শিগগিরই হয়ত স্বীকারোক্তি পেয়ে যাব। জিজ্ঞাসাবাদে শারমিন অনেক রকম কথা বলেছেন। আবার অস্বীকারও করেছেন। নিশ্চিত না হয়ে আমরা কিছু বলতে চাই না।’

 

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এক দিনের রিমান্ড অতিবাহিত হলেও কাঙ্ক্ষিত স্বীকারোক্তি মিলেনি। পেলে তাকে আমরা রিমান্ড না রেখে আজই (রোববার) আদালতের সোপর্দ করতাম। এখন পেলে আগামিকাল (সোমবার) কোর্টে জবানবন্দি দেয়ার ব্যবস্থা করব।’

 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই মনিমুল হক চৌধুরী বলেন, ‘শারমিনের অনেক বক্তব্যে হত্যার বর্ণনা পাওয়া যায়নি। তিনি যেসব কথা বলেছেন তার মধ্যে আমরা মিল খোঁজার চেষ্টা করছি। আশা করছি, শেষ মুহূর্তে হলেও তিনি মুখ খুলবেন।’

 

তদন্ত কর্মকর্তা আরও জানান, বৃহস্পতিবার রাতে কী কারণে মাইমুনাকে হত্যা করা হয়েছে, শারমিন নিজেই হত্যা করেছেন কি না, কীভাবে হত্যা করা হয়েছে- এ তিনটি প্রশ্নই করা হচ্ছে শারমিনকে। দফায় দফায় বিভিন্ন কৌশলে তার কাছ থেকে জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের সময় শারমিন একবার বলেন, তার ছোট মেয়ে মারিয়া ইসলাম কিবতিয়াকে ঘুমের ঘোরে লাথি মেরেছিল মাইমুনা। এ কারণে হত্যা করেছেন কি না বা মারধর করেছেন কি না জানতে চাইলে পরে আবার চুপসে যান শারমিন।

 

তদন্ত কর্মকতা জানান, মাইমুনার জন্য ব্যাংকে গচ্ছিত চার লাখ টাকার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে শারমিন মুখ খোলেননি।

 

তদন্তকারীরা জানান, শারমিন অত্যন্ত বদমেজাজী নারী। বাগেরহাটের চিতলমারীতে গ্রামের বাড়িতে থাকা অবস্থায় শারমিনের আগে একটি বিয়ে হয়। সে পক্ষে তার দুই সন্তান আছে। সাবেক স্বামী কালিমের সঙ্গে কলহে বিচ্ছেদের পর শারমিন বিয়ে করেন আব্দুর রাজ্জাককে।

 

মাইমুনার বাবা আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘মা মারা যাওয়ার পর মাইমুনা মনমরা থাকত। ওরে শুধু আমি না, সবাই আদর করত। ভাবছিলাম শারমিনও আদর করবে। কিন্তু সে কখনোই নিজের মাইয়া ভাবতে পারে নাই। অন্য বাচ্চাদেরও আমি আদর করতাম। হিংসার কারণে মারতে পারে তা স্বপ্নেও ভাবি না।’

 

রাজ্জাক আরও জানান, বৃহস্পতিবার তিনি মাদারিপুরে গ্রামের বাড়ি গিয়েছিলেন। এর আগেও তিনি মাইমুনাকে রেখে গ্রামের বাড়ি যান। তবে এমনটি তিনি আশঙ্কা করেনি। মেয়ের কষ্টের কথা ভেবেই মেয়েকে একা রাখতেন না রাজ্জাক।

 

মাইমুনার দাদি ফুলমতি জানান, বৃহস্পতিবার রাতে একা ঘুমাতে ভয় পাওয়ার কথা বলে মাইমুনাকে নিজের বিছানায় নিয়ে যান শারমিন। ওই রাতে দাদির সঙ্গেই ঘুমানোর কথা ছিল মাইমুনার। শারমিনের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্যই এ কৌশল করেছেন বলে ধারণা তদন্তকারীদের।

 

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার ধলপুর খালেকুজ্জামান গলির ভাড়া বাসা থেকে স্থানীয় হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রা.) মাহিলা মাদরাসার শিশু শ্রেণীর ছাত্রী মাইমুনার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। উদ্ধারের সময় তার মাথা ছিল ড্রামের ভেতরে এবং হাত-পায়ে ছিল আঘাতের চিহ্ন। ওই দিনই মাইমুনার সৎমা শারমিনকে গ্রেপ্তারের পর শনিবার থেকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

রাজনীতি

বিএনপির সামনে ভুল শুধরে নেওয়ার সুযোগ : স…

13-03-2015 | অনলাইন ডেস্ক

বিএনপির সামনে ভুল শুধরে নেওয়ার সুযোগ : সুরঞ্জিত

সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বিএনপির সামনে অতীতের ভুল শুধরে নেওয়ার সুযোগ দিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য এবং সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।শক্রবার সকালে...

বিস্তারিত

সরকার

রাজধানীসহ সারা দেশে বিজিবি মোতায়েন

13-03-2015 | অনলাইন ডেস্ক

রাজধানীসহ সারা দেশে বিজিবি মোতায়েন

রাজধানীসহ সারা দেশে শুক্রবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, মহাসড়কের নিরাপত্তা ও এসএসসি পরীক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় ৩২৬ প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন রয়েছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদর দপ্তরের জনসংযোগ...

বিস্তারিত

আইন ও বিচার

বাঁশের কেল্লার প্রধান সমন্বয়ক গ্রেফতার

13-03-2015 | অনলাইন ডেস্ক

বাঁশের কেল্লার প্রধান সমন্বয়ক গ্রেফতার

জামায়াত শিবির সমর্থিত ফেসবুক পেইজ বাঁশের কেল্লার প্রধান সমন্বয়ক জিয়াউদ্দিন ফাহাদকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।  বৃহস্পতিবার রাতে কুমিল্লা থেকে তাকে আটক করা হয়।শুক্রবার সকালে মিন্টো...

বিস্তারিত

রাজধানী

নাশকতার প্রতিবাদে ছাত্র ও শ্রমিক সমাজের …

13-03-2015 | অনলাইন ডেস্ক

নাশকতার প্রতিবাদে ছাত্র ও শ্রমিক সমাজের মানববন্ধন

হরতাল-অবরোধে নাশকতার প্রতিবাদে মন্ত্রীর নেতৃত্বে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ছাত্র ও শ্রমিক সমাজ। শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন।এসময় বক্তারা...

বিস্তারিত

দুর্ঘটনা

নিহত ১১: কুমিল্লা ও ফেনীতে সড়ক দুর্ঘটনায়

12-10-2014 | জেলা প্রতিনিধি

নিহত ১১: কুমিল্লা ও ফেনীতে সড়ক দুর্ঘটনায়

রোববার সকাল সাড়ে ৫টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে চৌদ্দগ্রামের মিয়ার বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চৌদ্দগ্রামের মিয়ার বাজার এলাকায় টাইম স্কয়ার হোটেলের সামনে চট্টগ্রাম...

বিস্তারিত

পরিবেশ

'কুকুরের হাত থেকে রক্ষা পেলেও রক্ষা পায়ন…

26-05-2014 | আনোয়ার

'কুকুরের হাত থেকে রক্ষা পেলেও রক্ষা পায়নি মানুষের হাত থেকে'

উপকূলীয় দ্বীপজেলা ভোলার তজুমদ্দিনে একটি মেছোবাঘকে পিটিয়ে হত্যা করেছে এলাকাবাসী। বাঘটি কুকুরের আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে একটি গাছে আশ্রয় নেয়। কিন্তু সেই মেছোবাঘটি কিছুক্ষণ কুকুরের...

বিস্তারিত