ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Thursday, 27 February 2014 18:07

তুরাগের সোয়া পাঁচ কোটি বর্গফুট জমি দখল হচ্ছে

Rate this item
(0 votes)

সীমানাপ্রাচীর ভুলভাবে স্থাপন করায় তুরাগ নদের প্রায় সোয়া পাঁচ কোটি বর্গফুট জমি বেদখল হয়ে যাচ্ছে। আদালতের রায় অনুসরণের নামে নদের দুই পাড়ে ১৫০ ফুট প্রস্থ জায়গা রেখে পিলার বসানো হয়েছে মাত্র এক দশমিক ৪৫ শতাংশ এলাকায়। বাকি ৯৮ দশমিক ৫৫ শতাংশ এলাকায় নদের ঢালে পিলার বসানো হয়েছে। এতে নতুন ও পুরাতন দখলদারেরা নদের ওই বিশাল এলাকা দখলে মরিয়া হয়ে উঠেছে।



বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলনের (বাপা) উদ্যোগে ‘তুরাগ নদের সীমানা নির্ধারণী খুঁটির অবস্থান’-বিষয়ক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। গতকাল শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে ওই সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য পড়ে শোনান বাপার সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল মতিন। বক্তব্য দেন বাপার যুগ্ম সম্পাদক মো. শাহজাহান মৃধা ও শরীফ জামিল এবং প্রকৌশলী ম ইনামুল হক।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাপার প্রতিনিধিদল কয়েক দিন আগে তুরাগের সীমানা নির্ধারণী খুঁটির অবস্থান দেখতে যায়। তারা মোট ২৮টি পয়েন্টে নদের দুই পাড়ের ৫৬টি স্থানের তথ্য সংগ্রহ করে ওই প্রতিবেদন তৈরি করে।

 ডা. মতিন জানান, সঠিকভাবে আদালতের রায় মানা হয়নি। এর ফলে প্রায় প্রতিটি স্থানেই নদের দুই পাড় মিলে গড়ে ৪০০ ফুট জায়গা ভুল পিলার স্থাপনের মধ্য দিয়ে নদ-বহির্ভূত হয়ে পড়েছে। আর নদের জমি দখলের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছে শক্তিশালী পুরাতন ও নতুন দখলদারেরা।

সম্মেলনে বলা হয়, এই ইচ্ছাকৃত পিলার বিভ্রান্তি যদি সংশোধন না করা হয়, তাহলে প্রকৃতি ও পরিবেশ স্থায়ী ধ্বংসের দিকে ধাবিত হবে। এ সময় অবিলম্বে ভুল স্থানে স্থাপিত সব পিলার অপসারণ করে হাইকোর্টের নির্দেশমতো সঠিক স্থানে পিলার বসানোর দাবি জানানো হয়। একই সঙ্গে ভুল পিলার স্থাপনের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে ওই সম্মেলন থেকে।

 

 

 

Last modified on Sunday, 09 March 2014 16:38