ঢাকা,শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০১৫, ২৯ ফাল্গুন ১৪২১, ২১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৬

Friday, 18 April 2014 16:07

রাজধানীতে বেড়েছে পানিবাহিত রোগের প্রকোপ Featured

ভ্যাপসা গরমে রাজধানীতে বেড়েছে পানিবাহিত রোগের প্রকোপ। তাই তিল ধরানোর জায়গা নেই যেন মহাখালীর আইসিডিডিআরবি'তে। আক্রান্তদের মধ্যে নারী ও শিশুদের সংখ্যাই বেশি বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে, সঠিক সময়ে হাসপাতালে না নিয়ে আসায় এসব রোগে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

হাসপাতালে ভর্তি এমনই একজন বলেন, 'গত বৃহস্পতিবার অবস্থার অবনতি দেখে রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে আসতে বাধ্য হই। আর ডাক্তাররা বলেছেন অতিরিক্ত গরমের কারনে এ সমস্যা। আমি আশা করছি খুব শীগ্রই আমার মা সুস্থ হয়ে উঠবেন।'

জামালউদ্দিনের মত অনেকেই গত এক সপ্তাহে একাধিক বার মহাখালীর আইসিডিডিআরবি'তে ছুটে এসেছেন অসুস্থ স্বজনকে নিয়ে। নিয়মিত সেবা যত্নের পরও প্রিয়জন সুস্থ না হওয়ায় শঙ্কা নিয়েই রোগীর পাশে দিন কাটাচ্ছেন স্বজনেরা। তারপরও একেকজন রোগীকে সারিয়ে তুলতে দিনরাত চেষ্টা করে যাচ্ছেন ডাক্তার-নার্স।

ভ্যাপসা গরমে বেড়েছে পানির চাহিদা। আর সেই সাথে বেড়েছে পানিবাহিত রোগে আক্রান্তের সংখ্যাও। তাই তিল ধরানোর জায়গা নেই যেন হাসপাতালে। ভর্তি হওয়া রোগিদের মধ্যে নারী ও শিশুদের সংখ্যাই বেশি।

ভর্তি হওয়া রোগিদের মধ্যে একজন নারী বলেন, ' সকাল থেকে একটানা বোমি হয়, তারপর পাতলা পায়খানা শুরু হয়। যার কারনে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি।'

পানি বাহিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে গত দেড় মাসে অন্তত ২০ জন রোগি মারা গেছেন এই হাসপাতালে। চিকিৎসকরা বলছেন, সঠিক সময়ে হাসপাতালে নিয়ে আসতে না পারায় তাদেরকে বাচাঁনো সম্ভব হয়নি।

হাসপাতালে কর্তব্যরত একজন চিকিৎসক বলেন, 'সঠিক সময়ে হাসপাতালে নিয়ে আসতে না পারায় দেখা যায় রোগী পথেই মারা যাচ্ছে। ডায়রিয়া হলে তাড়াতাড়ি যেকোন হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। মিরপুর এলাকা থেকে সবচেয়ে বেশি রোগী আসে।'

এ অবস্থায় সুস্থ থাকতে খাবার-দাবার গ্রহণে সতর্ক হবার পাশপাশি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।